মেইন ম্যেনু

কলারোয়া সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের বিক্ষোভ, ক্লাস বর্জন

সাতক্ষীরার কলারোয়া সরকারি কলেজের শনিবার সকালে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল ও ক্লাস বর্জন করেছে শিক্ষার্থীরা। জানা গেছে, ছাত্র-ছাত্রীদের নবীনবরণের আয়োজন না করা, ভর্তি ফরম বাবদ অতিরিক্ত ৫০ টাকা আদায় করা, শ্রেণিকক্ষে ফ্যান ও বাতি না থাকা, বিএনসিসি কোর্স চালু না থাকা, কলেজ অধ্যক্ষ নিজেই ঠিকাদার হয়ে প্রাচীরের পুরানো ইট দিয়ে টয়লেট নির্মাণ করা, ছাত্র-ছাত্রীদের সঙ্গে অসৌজন্যমুলক আচরণ, কলেজ ছাত্রলীগ নেতাদের অবমূল্যায়নসহ নানাবিধ কারণ দেখিয়ে এ কর্মসূচি পালন করে ছাত্রলীগ। বেলা ১টার দিকে কলেজ অধ্যক্ষ ড.হাসান সরোওয়ার্দী সমস্যাগুলো জরুরী ভিত্তিতে সমাধান করার আশ্বাস দিলে ছাত্র-ছাত্রীরা আন্দোলন তুলে নেয়। কলারোয়া সরকারি কলেজের ছাত্রলীগের সভাপতি শফিউর রহমান শিমুল, সাধারণ সম্পাদক আহনাফ তাজিম অনিক, হাবিবুর রহমান, রউফ, সাকিল খান জজ, রাব্বিসহ বেশকিছু ছাত্ররা সাংবাদিকদের জানায়, গত জুলাই মাসের ১ তারিখ থেকে তাদের ক্লাস শুরু হয়েছে। এর মধ্যে ঈদুল ফিতর উপলক্ষে কলেজ বেশ কিছু দিন ছুটি থাকে। ছুটি শেষ হলে ওই মাসের ২৩ তারিখে কলেজ খোলার পর থেকে কলেজের ওই সমস্ত সমস্যাগুলো সমাধান করার জন্য অধ্যক্ষকে বার বার বলা হয়। কিন্তু তিনি সমস্যার সমাধান করেননি। সে কারণে তারা আন্দোলনের ডাক দিতে বাধ্য হয়। কলেজ অধ্যক্ষ ড. হাসান সরোওয়ার্দী জানান, তাঁর কলেজের ছাত্রছাত্রীরা নবীনবরণ করার জন্য আর্থিক সহযোগিতা চাইলে তিনি কলেজ ফান্ডে টাকা না থাকায় দিতে পারেননি। তবে ব্যক্তিগত ভাবে ওই অনুষ্ঠানে সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন। অতিরিক্ত ভর্তি ফিসের ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি এ ব্যাপারে কিছু জানতাম না। পরে শুনেছি ভর্তি কমিটির শিক্ষকরা তাদের পারিশ্রমিক ও ই-মেইল খরচ বাবদ অতিরিক্ত ৫০ টাকা করে নিয়েছে। অতিরিক্ত টাকা ইতোমধ্যে ফেরত দিতে বলা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই