মেইন ম্যেনু

কষ্ট করেই জিততে হলো মুস্তাফিজের হায়দারাবাদকে

মাত্র ১২৭ রানের লক্ষ্য। এবারের আইপিএলে যেভাবে রানের বন্যা বয়ে যাচ্ছে, তাতে এই রান তো একেবারেই মামুলি; কিন্তু রাজকোটের সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন মাঠের উইকেটে কী এমন ছিল যে, যেটা পুরোপুরিই বোলিং স্বর্গ। প্রথমে সানরাইজার্স হায়দারাবাদের বোলাররা, এরপর রাজত্ব করলো গুজরাট লায়ন্সের বোলাররা। শেষ পর্যন্ত জয়ী দলের নাম সানরাইজার্স হায়দারাবাদই। তবে, এই জয় আসলো অনেক কষ্টেই।

১২৭ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে যদিও এক ওভার হাতে রেখে ৫ উইকেটে জয়ের বন্দরে পৌঁছেছে সানরাইজার্স, তবে তার আগে ভালোই ভুগতে হয়েছিল গুজরাট লায়ন্সের বোলারদের সামনে। এক সময় তো মনে হচ্ছিল, গুজরাটই জিতে যাবে। বলের সাথে পাল­া দিয়ে বাড়ছিল রানের ব্যবধান। বড় কোন শটও খেলতে পারছিল না। তবে শেষ পর্যন্ত শিখর ধাওয়ান অপরাজিত থেকেই ম্যাচটি জিতিয়ে মাঠ ছাড়লেন।

জয়ের জন্য ১২৭ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুতে ঝড় তুলেছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার। ১৭ বলে ২৪ রান করে তিনি আউট হয়ে গেলে মন্থর হয়ে যায় হায়দারাবাদের রানের গতি। কেন উইলিয়ামসন আউট হন ৯ বলে ৬ রান করে। ১৬ বলে ১৪ রান করেন মইসেস হেনরিক্স।

এবারের আইপিএলে প্রথম খেলতে নামা যুবরাজ সিং নামের প্রতি অবিচারই করেছেন বলতে গেলে। ২ ওভার বোলিং করে ১৩ রান দিয়ে কোন উইকেট নিতে পারেননি। ব্যাট করতে নেমে ১৩ বল খেলে রান করেছেন মাত্র ৫টি।

দীপক হুদা করেন ১২ বলে ১৮ রান। তবে শিখর ধাওয়ান ৪০ বলে ৪৭ রান করে দলের জয় নিশ্চিত করেন। বিশেষ করে ১৯তম ওভারে প্রাভীন কুমারের কাছ থেকে ১৬ রান নিয়েই জয়টা শেষ মুহূর্তে সহজ করে দেন তিনি। ধাওয়াল কুলকার্নি এবং ডোয়াইন ব্র্যাভো নেন ২টি করে উইকেট।

এই জয়ে ৮ ম্যাচ থেকে ১০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলে চার নম্বরে উঠে এলো সানরাইজার্স হায়দারাবাদ। ১০ ম্যাচ থেকে ১২ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে গুজরাট লায়ন্স।






মন্তব্য চালু নেই