মেইন ম্যেনু

কাঁঠালের নাম শুনলে নাক তো ছিটকান, আপনি কি জানেন এই কাঠাঁলের কত গুণ?

আম ও কাঁঠালের মৌসুম চলছে। অনেকেই কাঁঠালের নাম শুনলে নাক ছিটকান। কিন্তু এই কাঁঠালের অনেক গুণ। দুর্বল শরীরের মানুষকে মুহূর্তেই চাঙ্গা ও শক্তিশালী করে তুলতে পারে কাঁঠাল।

কাঁঠালকে কাঁচা ও পাকা দুইভাবেই খাওয়া হয়। কাঁচা কাঁঠালকে তরকারি হিসেবেও খাওয়া হয়। তেলে ভাজি করে চিপস বানিয়েও খাওয়া যায়। কাঁঠালের জুস খুবই মজার।

এক নজরে দেখে নিন কাঁঠালের নানা গুণ-

১. কাঁঠালের বীজে আয়রনের ভাগ বেশি থাকে। এতে রক্তশূন্যতায় কাজ দেয়।।

২. এর পাতার রস গরম করে কোনও ব্যাথার জায়গায় লাগালে ব্যাথা নিমেষে কমে যায়।

৩. কাঁঠালের কোয়ার রস উত্তেজনা কমায় ও ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায়।

৪. কাঁঠাল গাছের কাঠ খুবই মূল্যবান। কাঠে ঘুন ধরে না। এই কাঠে পালিশ করার প্রয়োজন নেই। চকচকে থাকে। নৌকার পাটাতন কাঁঠাল কাঠ দিয়ে তৈরি করা হয়। এছাড়া কাঠের মণ্ড চোখ জ্বালা ও সাইট্রিকার ওষুধ হিসেবেও ব্যবহার করা হয়। পোপার তৈরিতেও এই মণ্ড কাজে লাগে।

৫. কাঁঠালের খাদ্যগুণ অপরিসীম। কাঁটালে কার্বোহাইড্রেট, ফসফরাস, ক্যালসিয়াম, সুগার, ভিটামিন সি, আয়রন, ম্যাগনেসিয়াম, ভিটামিন এ,পটাসিয়াম, সোডিয়াম, বিটামিন বি-কমপ্লেক্স, ভিটামিন ই থাকে। ফ্যাট ও প্রোটিন থাকে পর্যাপ্ত।

৬. কাঁঠাল রোগ প্রতিরোধ করে।ক্যালসিয়াম ও ফসফরাস বেশ ভাল পরিমানে থাকায় অস্থি তৈরিতে ভাল কাজ দেয়।

৭. কাঁঠালের কোয়ার রস পিত্ত প্রশমন করে, ফলে স্নিগ্ধতা আসে।






মন্তব্য চালু নেই