মেইন ম্যেনু

কাজ করেনি জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি, তাই আদালতে মামলা!

গর্ভধারণ এড়াতে মানুষ সেবন করে জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি। কিন্তু এই বড়ি যদি কার্যকর না হয়? তাও যদি হয় স্রেফ প্রস্তুতকারকদের ভুলের কারণে? তখন কী হবে? এমনই এক পরিস্থিতিতে পড়ে সোজা মামলা ঠুকে দিয়েছেন শতাধিক নারী।

সিএনএন জানিয়েছে, ফিলাডেলফিয়ার আদালতে গত সপ্তাহের শুরুর দিকে এ ঘটনা ঘটে।

আদালতের বিবরণী বলছে, ওই নারীরা প্রস্তুতকারকদের নির্দেশনা অনুসারেই বড়ি সেবন করেছিলেন। তা সত্ত্বেও তাঁরা গর্ভধারণ করেন। এর কারণ হচ্ছে, বড়িগুলো প্যাকেজিং করা হয়েছিল পুরো ১৮০ ডিগ্রি উল্টো করে। এর ফলে বড়িগুলোর জন্মনিয়ন্ত্রক কার্যকারিতা একেবারেই থাকেনি।

এই নারীদের মধ্যে ৯৪ জন শেষ পর্যন্ত সন্তানের জন্ম দিয়েছেন। ১৭ জন ‘অনাকাঙ্ক্ষিত গর্ভধারণ’ শেষপর্যন্ত টিকিয়ে রাখেননি। অভিযোগকারীদের পক্ষে এই তথ্য জানিয়েছেন তাঁদের আইনজীবীরা।

ফিলাডেলফিয়ার আদালতে প্রায় ২৮টি প্রদেশ থেকে এই নারীরা এসেছেন। সেই সঙ্গে জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠানের কাছে জরিমানা দাবি করেছেন। ওরেগনের আইন অনুযায়ী, দোষী সাব্যস্ত হলে ওই প্রতিষ্ঠানকে অভিযোগকারীদের সন্তানদের কলেজ পর্যন্ত বেড়ে ওঠার সমস্ত খরচ বহন করতে হবে।

বড়িগুলোর নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের নাম কোয়ালিটেস্ট ফার্মাসিউটিক্যালস। এর একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, বিষয়টি সম্বন্ধে তাদের প্রতিষ্ঠান অবগত রয়েছে। তবে এই মুহূর্তে আইনি জটিলতা থাকায় তাঁরা কোনো ধরনের মন্তব্য করবেন না।






মন্তব্য চালু নেই