মেইন ম্যেনু

কারাগারের আসামিরা যেভাবে পাবে স্মার্ট কার্ড

দীর্ঘদিন অপেক্ষার পর চলতি মাসের ৩ তারিখ থেকে স্মার্ট কার্ড দেওয়া শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এ কার্ড সবার মত কারাগারের আসামিদের মধ্যেও বিতরণ করবে ইসি। নির্বাচন কমিশন সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, প্রথমে ইসি সিদ্ধান্ত নিয়েছিল কারাগারের আসামিদের কোন কার্ড দেওয়া হবে না। আসামিরা সম্পূর্ন ভাবে মুক্তি পাওয়ার পর নিজ এলাকা থেকে স্মার্ট কার্ড নিবে। তবে এ সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে নির্বাচন কমিশন।

এখন প্রতিটি কারাগারে আসামিদের স্মার্ট কার্ড দিবে ইসি। কারণ আসামিরা কারাগার থেকে বের হয়ে স্মার্ট কার্ড নিতে আগ্রহ প্রকাশ না করেত পারে। সে ক্ষেত্রে আসামিরা আপরাধ করলে তাদের গ্রেফতার করতে কঠিন হবে। আর আসামিদের কাছে স্মার্ট কার্ড থাকলে তাদের সহজে সনাক্ত করা যাবে।

সূত্র জানায়, সন্ত্রাসী ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে সরকার। যারা সমাজবিরোধী সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড পরিচালনা করছে তাদেরও স্মার্টকার্ড দেওয়া হবে। কারণ সন্ত্রাসী শনাক্ত করতে স্মার্ট কার্ড যথেষ্ট সহযোগিতা করবে।

স্মার্টকার্ডধারী ব্যক্তি যদি কোন অপরাধ করে তা দ্রুত শনাক্ত ও গ্রেফতার করতে সহযোগিতা করবে স্মার্টকার্ড। তবে এই স্মার্ট কার্ড নেওয়ার সময় নাগরিকদের পুরনো কার্ড জমা দেওয়ার পাশাপাশি ১০ আঙুলের ছাপ ও চোখের মণির ছবি দিতে হবে।

বিভিন্ন মামলায় গ্রেফতারকৃত আসামি, জঙ্গি, সন্ত্রাসী, প্রবাসীরা পাবেন স্মার্টকার্ড। এ ছাড়া পুলিশের অভিযানে এ যাবত যেসব জঙ্গি নিহত হয়েছে তাদের নামে স্মার্ট কার্ড তৈরি হয়েছে।

এনআইডি উইংয়ের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সুলতানুজ্জামান বলেন, আমরা সুষ্ঠুভাবে কার্ড বিতরণের জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। আমি জেনেছি, ভোটাররা স্মার্ট কার্ড পেয়ে অনেক খুশি। এ কার্ডে অনেক আধুনিক সুযোগ সুবিধা পাওয়া যাবে।বাংলাদেশের প্রতিটি ভোটার স্মার্ট পাবে।

যেভাবে স্মার্ট কার্ড বিতরণ: প্রথম পর্যায়ে গত ৩ অক্টোবর থেকে স্মার্ট কার্ড বিতরণ শুরু হয়েছে। ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন ও কুড়িগ্রামে।

দ্বিতীয় পর্যায়ে বিতরণ করা হবে খুলনা, চট্টগ্রাম, রাজশাহী, বরিশাল, সিলেট, নারায়ণগঞ্জ, কুমিল্লা, রংপুর ও গাজীপুর সিটি করপোরেশন এলাকায়। তবে এখনো দিনক্ষণ চূড়ান্ত করেনি ইসি।

তৃতীয় পর্যায়ে ৬৪টি সদর উপজেলা এবং চতুর্থ পর্যায়ে বাকি সব উপজেলায় দেশজুড়ে স্মার্টকার্ড বিতরণ করা হবে।

ইসি সূত্রে জানা গেছে, যাদের লেমিনেটেড জাতীয় পরিচয়পত্র নেই তারা নির্ধারিত স্লিপ দিয়ে এনআইডি নম্বর জেনে বিতরণকেন্দ্রে গেলেই স্মার্টকার্ড দেওয়া হবে। নির্ধারিত সময়ে গণমাধ্যমে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে এবং মাইকিং, ব্যানার, ফেস্টুন দিয়ে প্রচারের মাধ্যমে বিতরণের দিন তারিখ ও স্থান জানিয়ে দেওয়ার কথা রয়েছে ইসির।

প্রসঙ্গত, বর্তমানে দেশের প্রায় ১০ কোটি ভোটারের মধ্যে নয় কোটি স্মার্ট কার্ড দেওয়া হচ্ছে। বাকি ১ কোটির নতুন প্রকল্প নিয়ে ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে সব নাগরিকের হাতে স্মার্টকার্ড বিতরণ করবে নির্বাচন কমিশন।






মন্তব্য চালু নেই