মেইন ম্যেনু

কারাগারে অসুস্থ মান্না, সুচিকিৎসা দাবি

কারাগারে অসুস্থ নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্নাকে সুচিকিৎসা ও মুক্তির দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি। গ্রেপ্তারের পর থেকে গত ১১ মাস সংগঠনটি বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে আসছে।

সোমবার দুপুরে তোপখানা রোডস্থ বাংলাদেশ শিশু কল্যাণ পরিষদ মিলনায়তনে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলন এ দাবি জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করবেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য জিন্নুর আহমেদ চৌধুরী দীপু।

জিন্নুর আহমেদ চৌধুরী দীপু বলেন, গত ১৬ জানুয়ারিতে বিনাবিচারে কারাবন্দি মাহমুদুর রহমান মান্না হঠাৎ অসুস্থ হয়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। এ খবরে গতকাল তার স্ত্রী কারাফটকে ছুটে যান। কিন্তু কারা কর্তৃপক্ষ তার স্বামীর সঙ্গে দেখা করতে দেয়নি।’

এ ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করে জিন্নুর বলেন, ‘গতবছর ২৩ ফেব্রুয়ারি গভীর রাতে বনানীর এক আত্মীয়ের বাসা থেকে সাদা পোশাকের পুলিশ আটক করে নিয়ে যায়। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ১৮ ঘণ্টা নিখোঁজ থাকার পর তাকে গ্রেপ্তারের কথা স্বীকার করে ২৪ ফেব্রুয়ারি দুটি রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা দায়ের করে।’

‘ওই দুই মামলায় ২০ দিনের রিমান্ডে নিয়ে মান্নাকে নির্যাতনের ফলে ১৩ দিন পর গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। মেডিকেল বোর্ডের সুচিকিৎসার সুপারিশ উপেক্ষা করে তাকে কারাগারে ফিরিয়ে নেয়া হয়। তারপর থেকে রিমান্ডের অজুহাতে এ পর্যন্ত জামিন আবেদন করা যায়নি। এভাবেই ১১ মাস অতিবাহিত হচ্ছে,’ বলেন জিন্নুর।

তিনি জানান, মান্নাকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে রিমান্ড বাতিলের দাবিতে হাইকোর্টে মামলা দায়ের করলে প্রথমে কেন রিমান্ড বাতিল করা হবে না মর্মে শোকজ করা হয়। তার জবাব না দেয়ায় হাইকোর্ট রিমান্ড বাতিল ঘোষণা করলে আপিল বিভাগের চেম্বার জজ আদালতে সরকারপক্ষ আপিল করে। এ অবস্থায় রায়ের কপি না পাওয়ায় সবকিছু থমকে আছে।

লিখিত বক্তব্যে আরও বলা হয়, মান্নার ডিভিশন আবেদনও উপেক্ষিত হয়েছে। ফলে তাকে অসুস্থ অবস্থায় মেঝেতে অমানবেতর অবস্থায় দিন কাটাতে হচ্ছে।

বক্তারা জরুরি ভিত্তিতে মান্নার সুচিকিৎসার দাবি জানান। সেইসঙ্গে আটকাবস্থা থেকে তার মুক্তির দাবিও জানান।

সংবাদ সম্মেলনে নাগরিক ঐক্যের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আবু বকর সিদ্দিকী, আতিকুর রহমান, ইঞ্জিনিয়ার ওয়াহিদুজ্জামান ও ইফতেখার আহমদ বাবু প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই