মেইন ম্যেনু

কারাবন্দীদের এক পশলা কষ্টের ঈদ

সারা দেশের বিভিন্ন কারাগারে ঈদ কাটাচ্ছে হাজার হাজার বন্দী। গতানুগতিক নিয়মে তারা কারাগারেই ঈদের নামাজ আদায় করছেন। বরাবরের মতো তাদের জন্য ঈদ উপলক্ষে ভালো কিছু খাবারের ব্যবস্থাও হয়েছে। তবে তাদের কাছে ঈদ বাড়তি কোনো আবেদন নিয়ে আসে না। বুকের ভেতর লুকিয়ে থাকা কিছু কষ্ট তাজা করে দেয়া ছাড়া ঈদ তাদেরকে কোনো আনন্দ দিতে পারে না।

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে এবার ঈদ করছেন প্রায় সাড়ে সাত হাজার বন্দী। এদের মধ্যে দুইজন রয়েছেন ভিআইপি। তারা হলেন নারায়ণগঞ্জে সেভেন মার্ডারে অভিযুক্ত অবসরপ্রাপ্ত কর্নেল তারেক সাঈদ ও বিএনপি নেতা আবদুস সালাম পিন্টু। শুক্রবার সকালে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারেই ঈদের নামাজ আদায় করেন বন্দীরা।

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে ঈদের দিন সকালে প্রত্যেক বন্দীকে খেতে দেওয়া হয়েছে সেমাই, মুড়ি, দুপুরে দেওয়া হবে সাদা ভাত, আলুরদম, রুই মাছ ও রাতে দেওয়া হবে পোলাও, গরুর গোশত, মিষ্টি ও পান সুপারী।

জানতে চাইলে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মো. নেসার আলম মুকুল বলেন, ঈদের দিন প্রত্যেক বন্দীর রয়েছে বিশেষ খাবারের ব্যবস্থা, শিশুদেরকে দেওয়া হয়েছে নতুন কাপড়।

কাশিমপুর পার্ট-১ বন্দী রয়েছেন মানবতাবিরোধী অপরাধে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপি নেতা সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরী, আমৃত্যু কারাদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াত নেতা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী, চট্টগামের ১০ ট্রাক অস্ত্র মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত সাবেক স্বরাষ্ট প্রতিমন্ত্রী ও বিএনপি নেতা লুৎফুজ্জামান বাবর এবং ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন।

কারাগারের নিরাপত্তা মেনেই ঈদের দিন সকাল সাড়ে আটটার সময় একসঙ্গে তিনটি জামায়াতে নামাজ পড়েছেন বন্দীরা। কাশিমপুরপার্ট-১ এ বন্দী রয়েছেন ১২৮৪ জন। তাদের সকালে দেওয়া হয়েছে মুড়ি, পায়েস, দুপুরে সাদাভাত ডিম, সবজি রাতে দেওয়া হবে পোলাও, গরু অথবা খাশির গোশত, মিষ্টি ও পান সুপারী।

কাশিমপুর পার্ট-১ জেলার মো. ফরিদুর রহমান রুবেল বলেন, ঈদের দিন বন্দীদের জন্য রয়েছে বিশেষ ব্যবস্থা। কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা ছাড়াই সুন্দরভাবে ঈদ পালন করেছেন বন্দীরা।

নারায়ণগঞ্জ জেলা কারাগারে সকাল পৌনে নয়টার সময় ঈদের নামাজ পড়েছেন সেখাকার বন্দীরা। ইতোমধ্যে সেখানে সকাল ও দুপুরে খাবার দেওয়ার প্রক্রিয়া শেষ করেছেন কারাগার কর্তৃপক্ষ। ১২০৯ জন বন্দী নারায়ণগঞ্জ জেলার কারাগারে এবার ঈদ পালন করছেন। তবে সেখানে কোনো ভিআইপি বন্দী নেই বলে জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জের জেলার মো. আসাদুর রহমান।

তিনি মুঠোফোনে বলেন, আলহামদুলিল্লাহ এবার ঈদ খুব ভালোভাবে সম্পন্ন হচ্ছে।

কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কারাগারে এবার ঈদ পালন করেন জামায়াতের আমির মাওলানা মতিউর রহমান নিজামী। সেখানে এবার ঈদের সকাল নয়টা ও সাড়ে নয়টার সময় দুইটি জামায়াতে নামাজ আদায় করেছেন বন্দীরা। সকাল, দুপুর ও রাতে থাকছে উন্নতমানের খাবার। কারাগারে এখনও পর্যন্ত পরিবারের কেউ নিজামীর সঙ্গে সাক্ষাত করে আসেননি বলে জানিয়েছেন সেখানকার সিনিয়র জেল সুপার মো. মিজানুর রহমান।

কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কারাগারে জেল সুপার মো. মিজানুর রহমান মুঠোফোনে আলাপকালে বলেন, জামায়াত নেতা নিজামীর বয়স এখন ৭৫ বছর। তিনি বার্ধক্যজনিত কারণে অসুস্থ। তিনি অনেকটা নিস্তেজ হয়ে পড়েছেন।

কারাগারে বন্দীদেরকে উন্নত খাবার দেওয়াসহ সব ধরনের আনুষ্ঠানিকতা ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে বলেও তিনি জানান। ঢাকাটাইমস






মন্তব্য চালু নেই