মেইন ম্যেনু

“কালো বলে কাউকে অপমান করো না”

একটা মেয়ের গায়ের রঙ কালো, তাই তার বান্ধবীরা সেলফি তুলতে গেলে তাকে নিতে চায় না,কারন তাতে নাকি তাদের সেলফিটার অপমান হবে। কিন্তু এইটা চিন্তা করে না ওই মেয়েটারও সেলফি তোলার ইচ্ছা
জাগে,হয়ত ইচ্ছা করলেও পাড়ে না। বান্ধবীরা এইটা ভাবে না,ছোট বেলায় তাদের মা কপালে কাজলের টিপ দিয়ে দিতো।যাতে করে কারো নজর না পড়ে। তেমনি ওই মেয়ে তাদের ৫জনের কপালের টিপ হয়ে থাকতে পারতো যাতে নজর না পড়ে।

কালো মেয়েটা মাঝে টিভিতে ফেয়ার এন্ড লাভলির এড দেখে চিন্তা করে,এই গুলি করা তো বৃথা চেষ্টা,কারন আল্লাহ্ তাকে এমন করে সৃষ্টি করেছে নির্দিষ্ট কোন উদ্দেশ্যে। কালো মেয়েটা বাসায় বসে মাঝে মাঝে ইচ্ছা করে কয়েকটা ছবি তুলে,একটু ব্রাইটনেস বাড়িয়ে দেয়।যদি তাকে আর একটু ভালো দেখায়।কিন্তু আবার সব ডিলিট করে দেয়,কারন এই সব মেয়ে গুলির জন্ম হয়েছে শুধু মানুষের কথা শোনার জন্য।

ফেসবুকে যখন তার প্রোফাইল নামে এঞ্জেল নাম দেওয়া থাকে,তখন বান্ধবীরা হাসাহাসি করে,বাসায় এসে সবাইকে ব্লক করে দিয়ে তাদের বলে আইডি ডিক্টিব করে দিয়েছি। কালো মেয়েটা যখন লুকিয়ে লুকিয়ে
অপরিচিত লোকদের সাথে ফেসবুকে চ্যাট করে তখন,সবাই তাকে দেখতে চায় কিন্তু তার মনে যে অনেক ভয়
তাই সবার এই একটি কথাই এড়িয়ে যায়,সবাইকেই বলে ছবি দিতে তার ভালো লাগে না।

পৃথিবী যখন সেলফি ময়,তখন সে কোন এঞ্জেলের ছবি প্রোফাইলে দেয়,তাতেও অনেক লাইক কমেন্ট পড়ে।
আজকে তার এই লুকিয়ে থাকার পিছনে কে দায়ী?তার ফ্রেন্ড নাকি তার বাবা মা?যারা তাকে জন্ম দিয়েছেন, নাকি আল্লাহ্ যে তাকে সৃষ্টি করেছেন।

এদের মধ্যে কেউ না কিংবা এদের কারো ভুল না,ভুল আমাদের নিজেদের,ভুল আমাদের সমাজের।যেখানে
কালো আর সাদা গায়ের রঙ টাই দেখলো। কিন্তু মানুষের মনটা দেখলো না।






মন্তব্য চালু নেই