মেইন ম্যেনু

কেন্দ্রীয় কমিটি ঘোষণা: ক্ষোভে ফুঁসছেন ছাত্রলীগের নারী নেত্রীরা

সাত মাস পর বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের ঘোষিত কমিটির কোন গুরুত্বপূর্ণ পদে নেই নারী নেত্রীরা। রাজনীতির মাঠে কমিটি গঠন নিয়ে প্রচলিত প্রবাদ ‘যার নাই গতি সে হয় সহ-সভাপতি’ পদে ৫ জন নারী নেত্রী স্থান পেয়েছেন। অপর দুটি গুরুত্বপূর্ণ পদ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক পদের একটিতেও কোন নেত্রীর স্থান হয়নি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন নারী নেত্রী প্রকাশ্যে ক্ষোভ প্রকাশ করতে না পারলেও কাছে এ বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

ছাত্রলীগের দুই জন নারী নেত্রী নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, আমাদের সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক কমিটি অনুমোদনের আগে তা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তার সরকারি বাসভবন গণভবনেসাক্ষাত করেন। তাকে নাকি নামের তালিকা দেখিয়ে তার সম্মতিতে কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে! তাহলে এটা কি হল? নেতারা সহ-সভাপতি পদে পাঁচ জন নারীর নাম দিয়েছেন, যেটা একটা কৌশল মাত্র, যাতে এই নাম দেখে দলীয় সভানেত্রী ধারণা করেন যে, পরের গুরুত্বপূর্ণ পদগুলোতেও নারী নেত্রীরা আছেন।

তারা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘যেখানে আওয়ামী লীগের সভানেত্রী নারী। মূল দলের কমিটিতে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদেও একজন নারী আছেন। সেখানে কেন ছাত্রলীগের মত সংগঠনে নারীদের গুরুত্বপূর্ণ স্থান থাকবে না। এটা কোনভাবেই মেনে নেয়া যায় না। এ ব্যাপারে আমরা শিগগিরই সংশ্লিষ্ট নেতাদের মাধ্যমে দায়িত্বশীল নেতাদের কাছে অভিযোগ করব।

সোমবার ঘোষিত ছাত্রলীগের কমিটি বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, কমিটিতে সহ-সভাপতি পদে ৫জন নারী নেত্রীর স্থান হয়েছে। তারা হলেন- নুসরাত জাহান নূপুর, নিশীতা ইকবাল নদী, শিউলী আকতার, চৈতালী হালদার চৈতী, মাসুমা আকতার পলি, অর্ণা জামান। অথছ সাংগঠনিক ক্ষেত্রে সম্মানজনক পদ সহ-সভাপতি পরে গুরুপ্তপূর্ণ ‘যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক’ পদ দুটির একটিতেও স্থান হয়নি কোন নারী নেত্রীর। এছাড়াও প্রচার সম্পাদক ও দফতর সম্পাদক পদেও স্থান হয়নি তাদের। এমনকি ‘উপ-দফতর ও প্রচার’ পদেও স্থান হয়নি কোন নারী নেত্রীর।

তবে উপ-সম্পাদক থেকে সহ-সম্পাদক পদে স্থান হয়েছে ১০জন নারী নেত্রীর। এরা হলেন, উপ-আর্ন্তজাতিক বিষয়ক সম্পাদক ইশাত কাশফিয়া ইরা, উপ-তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক চৈতী রানী, উপ-অর্থ বিষয়ক সম্পাদক তিলোত্তমা শিকদার, উপ-গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ইশরাত জাহান অর্চি, উপ-নাট্য ও বিতর্ক বিষয়ক সম্পাদক সোহানী হাসান তিথী, সহ-সম্পাদক খাদিজাতুল কুবরা, ফারজানা আক্তার সুপর্না, শিরীন শিলা, উর্মি ঢালী এবং সুমনা আক্তার লিলি।

গত সোমবার রাত সাড়ে আটটার পর দুই দফায় ছাত্রলীগ সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন স্বাক্ষরিত প্যাডে কমিটি ঘোষণা করা হয়। গত বছর ২৮তম কাউন্সিলের মধ্য দিয়ে দেশের ইতিহাস, সংগ্রাম ও আন্দোলনের ঐতিহ্যবাহী ছাত্রসংগঠনটির নেতা নির্বাচিত হনতারা।






মন্তব্য চালু নেই