মেইন ম্যেনু

গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের

কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ নির্বাচনের বেসরকারী ফলাফল ঘোষিত

সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের ২য় কমিটির চূড়ান্ত নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার (২৭ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩৩১ নং কক্ষে সকাল ১০ টা থেকে ১২ টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলে।

বেসরকারীভাবে ফলাফল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার অধ্যাপক মোঃ সিরাজুল ইসলাম। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্টার মোঃ দেলোয়ার হোসেন ও নির্বাচনে দায়িত্বরত শিক্ষকরা উপস্হিত ছিলেন।

ফলাফল অনুসারে ছাত্র সংসদের সহ-সভাপতি নির্বাচিত হয়েছে রাজনীতি ও প্রশাসন বিভাগের মোঃ শামীম হোসেন।

তবে সাধারণ সম্পাদক পদে ফার্মেসী বিভাগের মোঃ ইমরান হোসেন ও ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের জীবন খান সম পরিমাণ (১০)ভোট পাওয়ায় উপদেষ্টা পরিষদের বৈঠক শেষে আগামীকাল ঘোষণা করা হবে।

এছাড়া কোষাধ্যক্ষ পদে ফার্মেসী বিভাগের ইফফাত ফারাহ মৌসুমি, ক্রীড়া সম্পাদক (আউটডোর)পদে ব্যাবসায় প্রশাসন বিভাগের মোঃ ইমরান হোসেন খান রনি, ক্রীড়া সম্পাদক (ইনডোর)পদে ইংরেজী বিভাগের মোঃ হাসান হাফিজুর, সহ-ক্রীড়া সম্পাদক পুরুষ(আউটডোর)পদে মেডিকেল ফিজিক্স এন্ড বায়োমেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের মোঃ জোবায়রুল ইসলাম, সহ-ক্রীড়া সম্পাদক পুরুষ (ইনডোর)পদে সমাজবিজ্ঞান ও সমাজকর্ম বিভাগের রায়হানুল কবির, নাট্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদে ভাষা যোগাযোগ ও সংস্কৃতি বিভাগের ইউসুফ হাসান ও সমাজ সেবা সম্পাদক পদে কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের মাহমুদুন নূর মহান নির্বাচিত হয়েছেন।

নির্বাচনের চূড়ান্ত ফলাফল আগামী মঙ্গলবার (২৮ জুলাই) বেলা ১২ টার মধ্যে প্রকাশিত হবে।

এছাড়া প্রচার সম্পাদক পদে বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত গণিত বিভাগের মোঃ সাইফুল ইসলাম শ্রাবণ, সাহিত্য ও ম্যাগাজিন সম্পাদক পদে গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজের নির্ঝর কুমার মন্ডল, সহ-ক্রীড়া সম্পাদক মহিলা (ইনডোর) পদে গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজের নুসরাত জাহান টুম্পা এবং সেমিনার ও বিতর্ক সম্পাদক পদে ফার্মেসী বিভাগের মোঃ আব্দুল আলীম বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

তবে সহ-ক্রীড়া সম্পাদক মহিলা (আউটডোর), সহ-সাহিত্য ও ম্যাগাজিন সম্পাদক, সহ-নাট্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক, সহ-সেমিনার ও বিতর্ক সম্পাদক এবং সদস্য ৫টি পদসহ মোট ৯ টি পদে মনোনয়ন পত্র না পাওয়ায় উক্ত পদগুলো শুন্য রয়েছে বলে নিশ্চিত করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার।কিন্তু পদগুলো খালি থাকার কারণ সম্বন্ধে কিছু জানা যায় নি।

উল্লেখ্য, নির্বাচনে বিভিন্ন বিভাগ থেকে নির্বাচিত ২৬ জন প্রতিনিধির মধ্যে ২৪ জন ভোটে অংশগ্রহন করে। তবে নির্বাচিত দুইজন প্রতিনিধি কেন নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেনি সে বিষয়ে কিছু জানা যায় নি।






মন্তব্য চালু নেই