মেইন ম্যেনু

কেন এখনও রুবেলকে ভালোবাসি, জানি না

বাংলাদেশ-ভারত খেলা কভার করতে অনেক সাংবাদিক এখন ঢাকায়। খেলার পাশাপাশি তারা বাংলাদেশের বিভিন্ন পেশার মানুষের সাক্ষাৎকারও নিচ্ছেন। সরাসরি সাক্ষাতের সুযোগ না পেলে নেয়া হচ্ছে টেলিফোনে। সম্প্রতি জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার আশরাফুলের সাক্ষাৎকার নেয় আনন্দবাজার পত্রিকার একজন সাংবাদিক।
এবার আলোচিত অভিনেত্রী নাজনীন আক্তার হ্যাপির সাক্ষাৎকার নিয়েছেন টাইমস অব ইন্ডিয়া গ্রুপের বাংলা পত্রিকা ‘এই সময়’র রুপক বসু। টেলিফোনে নেয়া সাক্ষাৎকারটি বৃহস্পতিবার পত্রিকাটিকে প্রকাশিত হয়েছে।
হ্যাপির সাক্ষাৎকারটি আওয়ার নিউজ বিডি’র পাঠকদের জন্য হুবহু তুলে ধরা হলো।
প্রশ্ন: বাংলাদেশ আপনার শহরে টেস্ট খেলছে৷ দেখতে আসবেন না?
হ্যাপি: টেস্ট কেন, ওয়ান ডে-ও দেখতে যাব না৷প্রশ্ন: কেন?

হ্যাপি: আমি তো ক্রিকেট দেখতে ভালোবাসি না৷ রুবেল খেলত বলে দেখতাম৷ এখন আর দেখতে চাই না৷ কীসের জন্য দেখব, কার জন্য দেখব?

প্রশ্ন: বাংলাদেশকে সমর্থন করবেন না?

হ্যাপি: আমি খেলা দেখি না৷ তাই সমর্থনের প্রশ্ন নেই৷ কিন্তু আমি চাই, ভারত জিতুক৷

প্রশ্ন: রুবেলের প্রসঙ্গ আপনি তুললেন বলেই বলছি, বিশ্বকাপের পর শোনা গিয়েছিল আপনি রুবেলের বিরুদ্ধে মামলা তুলে নেবেন৷ ব্যাপারটা কী?

হ্যাপি: আমি মামলা তোলার কথা বলেছিলাম৷ কিন্তু সেটা বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডকে হারানোর পর নয়৷ জিম্বাবুয়েকে হোয়াইট ওয়াশ করার পরই বলেছিলাম৷ সবাই আমার ফেসবুক পোস্টটা পরে দেখেছে৷ আর এটাও লিখে নিন, ওই মামলা তোলার কথা ভাবাটা আমার জীবনের সবচেয়ে বড় ভুল সিদ্ধান্ত ছিল৷

প্রশ্ন: এখন পরিস্থিতিটা কোন জায়গায় দাঁড়িয়ে?

হ্যাপি: ওকে তো একটা আদালত ছেড়ে দিয়েছে৷ কিন্তু আমি উচ্চ আদালতে যাব৷ হয়তো ওখানেও ছাড়া পেয়ে যাবে৷ কিন্তু আমি ছাড়ব না৷ সত্যের জন্য লড়াই চালিয়ে যাব৷

প্রশ্ন: ভারতে আপনাদের মতো ক্রিকেটার-অভিনেতা জুটি বিরাট-আনুশকা নিয়ে কী বলবেন?

হ্যাপি: আমাদের মতো বলছেন কেন? আমাদের রিলেশনটা তো পূর্ণতাই পেল না৷ তবে বিরাট-আনুশকা দারুণ কাপল৷ খুব ভালো লাগে ওদের দেখতে৷ আমি মন থেকে প্রার্থর্না করি, ওদের জুটিটা যেন চিরকাল এ রকমই থাকে৷ যে কোনও ভালোবাসাই যেন ভেঙে না যায়৷ কোনো মেয়েকে যেন আমার মতো চোখের পানি ফেলতে না হয়৷

প্রশ্ন: আপনি তো অভিনেত্রী৷ কলকাতার সিনেমা করতে ইচ্ছে করে না?

হ্যাপি: দেখেছেন, এখানেও রুবেলের প্রসঙ্গ এসে যাচ্ছে? কলকাতার দু’এক জনের সঙ্গে কথা হয়েছিল৷ কিন্তু রুবেল চাইত না, আমি অভিনয় করি৷ তাই আমি আর চেষ্টা করিনি৷

প্রশ্ন: আর এখন?

হ্যাপি: ভীষণভাবেই পশ্চিমবঙ্গে গিয়ে ফিল্ম করতে চাই৷ ডাক পেলেই চলে যাব৷

প্রশ্ন: কোনো পছন্দের নায়ক আছে নাকি?

হ্যাপি: আছে তো৷ এমনিতে অনেক অ্যাক্টরই খুব ভালো৷ কিন্তু দেব একেবারে স্পেশ্যাল৷  লুকাবো না, অভিনেত্রী হিসেবে এখন আমার ইচ্ছে দেবের সঙ্গে সিনেমা করা৷ দেবের নায়িকা হিসেবে৷

প্রশ্ন: অভিনেত্রী হিসেবে কী স্বপ্ন আপনার?

হ্যাপি: কোনো স্বপ্নই নেই৷ এটা তো আমার রুবেলকে ভুলে থাকার একটা অবলম্বন৷ জানি না, কেন এখনও রুবেলকে এত ভালোবাসি৷

প্রশ্ন: বাংলাদেশের কোনো ক্রিকেটার এ ব্যাপারে মধ্যস্থতা করতে এগিয়ে আসেনি?

হ্যাপি: একবার মাশরাফি ভাই আরও অনেকে রুবেলকে নিয়ে এসেছিল৷ বলেছিল কেস তুলে নেওয়ার জন্য৷ তখন রুবেলও বলেছিল, আমাকে বিয়ে করবে৷ কিন্তু তারপর আবার যে কে সেই৷প্রশ্ন: শেষ প্রশ্ন, কী চান, কী ভাবে মানুষ আপনাকে মনে রাখুক?হ্যাপি: একটা মেয়ে যে সত্যের জন্য লড়াই করেছিল৷ একা৷






মন্তব্য চালু নেই