মেইন ম্যেনু

কেন খাবেন তেঁতুলের শরবত?

তেঁতুল শব্দটি শোনার সঙ্গে সঙ্গেই জিভে যেন পানি চলে আসে। প্রচণ্ড টক স্বাদের এই ফলটি অনেকেরই প্রিয়। তেঁতুলে রয়েছে প্রচুর পুষ্টি ও ভেষজ গুণ। তেঁতুল দেহে উচ্চরক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে এবং হৃদরোগীদের জন্য খুব উপকারী। তেঁতুল দিয়ে কবিরাজি, আয়ূর্বেদীয়, হোমিও ও এলোপ্যাথিক ঔষধ তৈরি করা হয়। পাকা তেঁতুলে মোট খনিজ পদার্থ সব ফলের চেয়ে অনেক বেশি।

অন্যান্য পুষ্টি উপাদান স্বাভাবিক পরিমাণে আছে এ তেঁতুল যেসব রোগের জন্য উপকারী তা হলো স্কার্ভি রোগ, কোষ্ঠবদ্ধতা, শরীর জ্বালা করা প্রভৃতি রোগে তেঁতুলের শরবত খুব উপকারী।

তেঁতুল রক্তের কোলস্টেরল কমায়। পেটে গ্যাস হলে তেঁতুলের শরবত খেলে ভালো হয়। তেঁতুল খেলে কোনো ক্ষতি হয় না। তবে বেশি খেলে রক্তের চাপ কমে যেতে পারে। তেঁতুল মেদ বা চর্বি কমানোয় বেশ বড় ভূমিকা রাখে। তবে তা দেহের কোষে নয়, রক্তে। এতে কোলস্টেরল ও ট্রাইগ্রাইসেরাইডের মাত্রা এবং রক্তচাপ স্বাভাবিক রাখতে সাহায্য করে।

তেঁতুলে থাকা ভিটামিন-মিনারেলস স্বাস্থ্যের জন্য ভীষণ উপকারী। বিশেষ করে গরমে তেঁতুলের শরবত আপনাকে দেবে অতুলনীয় শান্তি। আসুন জেনে নেই কিভাবে বানাবেন তেঁতুলের শরবত-

উপকরণ:

১. পাকা তেতুল এক কাপের চারভাগের এক ভাগ
২. ঠান্ডা পানি ৩ কাপ
৩. চিনি ১ কাপ
৪. লবণ পরিমাণ মত
৫. বিট লবণ স্বাদ মত
৬. বরফ কুচি,
৭. লেবুর স্লাইস (সাজানোর জন্য)।

প্রস্তুত প্রণালী: আধা কাপ পানিতে তেঁতুল ভিজিয়ে রাখুন। এবার হাত দিয়ে তেঁতুল ভালো করে গুলে নিন। তেঁতুলের পানিটুকু মিহি ছাকনি দিয়ে ছেকে নিন। দেড় কাপ পানিতে চিনি দিন। গুড় ও তেঁতুল এক সঙ্গে মেশান। এবার পরিমাণ মতো লবণ ও বিট লবণ দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। এবার গ্লাসে ঢেলে লেবুর স্লাইস দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন মজাদার টক মিষ্টি তেঁতুলের শরবত।






মন্তব্য চালু নেই