মেইন ম্যেনু

কে সেই যুবক, মাথায় হেঁটে গিনেসে উঠার চেষ্টা ?

অসম্ভবকে সম্ভব করতে যাচ্ছেন তিনি। কী কঠিন কাজ, তাই না। মাথা মাটিতে ছুঁয়ে, পা শূন্যে ভাসমান। যোগে যাকে বলে শীর্ষাসন। তা একজনের পক্ষে কতক্ষণ এভাবে থাকা সম্ভব? পাঁচ মিনিট, ১০ মিনিট… কিন্তু তিনি এর আগেই ৩৪ মিনিট শীর্ষাসনে থেকে রেকর্ড গড়ে বসে আছেন। এবার তার সেই নিজেরই রেকর্ড ভাঙার পালা। এই সময়ের এক প্রতিবেদনে এ খবর জানা গেছে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের এই যুবকের দাবি, ২১ জুন আন্তর্জাতিক যোগ দিবসে তিনি নয়া রেকর্ড গড়ে গিনেসে ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে লেখাবেন নিজের নাম। শীর্ষাসনে থাকবেন পাক্কা একঘণ্টা।

ফাঁকা আওয়াজ? তা কেউ মনে করলে করতেই পারেন কিন্তু তিনি ইভান স্ট্যানলি দৃঢ় প্রত্যয়ী, পারবেনই। ২১ জুন দুবাইতে দেখা যাবে তার এই রেকর্ড গড়ার ‘যোগ’।

বাই প্রফেশান ইভান স্ট্যানলি একজন ক্রেয়েটিভ ডিরেক্টর। ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি ও মালায়লমে চোস্ত। বিজ্ঞাপন দুনিয়ার আঙিনায় সদর্প ঘোরাফেরা। কিন্তু এই বিজ্ঞাপনী দুনিয়ার বাইরেও তার যোগা প্রশিক্ষক হিসেবে সুনাম রয়েছে।

দেড় দশকেরও বেশি সময় ধরে প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন। নিজে যোগা শিখেছেন বিহার স্কুল অফ যোগা থেকে। মাইসোর থেকেও নিয়েছেন প্রশিক্ষণ। বাবা বালক দাস, সরস্বতী জৈশদের পেয়েছেন যোগাগুরু হিসেবে।

জন্মসূত্রে UAE-এর সঙ্গে নাড়ির যোগ থাকলেও তিনি থাকেন ভারতে। স্ট্যানলির কথায়, আমি আজও নিজেকে মনে করি যোগার ছাত্র। রোজই শিখি। গোটা জীবন ধরেই শিখব। এখন অ্যাক্রো যোগা ও প্যাডেল বোর্ড যোগায় নিজেকে ব্যস্ত রেখেছেন। চলছে তার নানা পরীক্ষা-নিরীক্ষা।






মন্তব্য চালু নেই