মেইন ম্যেনু

কোকেনকাণ্ড খতিয়ে দেখতে অনুসন্ধান টিম গঠন

চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে সানফ্লাওয়ার তেলের ড্রামে তরল কোকেন আমদানির ঘটনা অনুসন্ধানে নগর গোয়েন্দা(ডিবি) পুলিশের উপ-কমিশনার কুসুম দেওয়ানকে প্রধান করে ১০ সদস্যের একটি টিম গঠন করেছে নগর পুলিশ।

সিএমপি কমিশনার মোহাম্মদ আব্দুল জলিল মণ্ডলের আদেশে এ টিম গঠন করা হয়েছে বলে জানান অতিরিক্ত উপ-কমিশনার এসএম তানভির আরাফাত।

গঠিত টিমে আছেন, ডিবি পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার এসএম তানভির আরাফাত ও তিন সহকারী কমিশনার মো. কামরুজ্জামান, ফয়জুল ইসলাম ও জাহাঙ্গীর আলম। এছাড়া রয়েছেন কোতয়ালি জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার মো. মঈন উদ্দিন, নির্মলেন্দু বিকাশ চক্রবর্তী ও এসএম নূরুল হুদা, বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা একেএম মহিউদ্দিন সেলিম ও আকবর শাহ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সদীপ কুমার দাশ।

এসএম তানভির আরাফাত জানান, ইতোমধ্যে ডিবি পুলিশ এ ঘটনায় চারজনকে গ্রেফতার করেছে। যাদের গ্রেফতার করা হয়েছে তারা হলেন- কন্টেনার আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান খান জাহান আলী লিমিটেডের মালিকানাধীন প্রাইম হ্যাচারির ব্যবস্থাপক গোলাম মোস্তফা সোহেল, গার্মেন্টস পণ্য রফতানিকারক প্রতিষ্ঠান মণ্ডল গ্রুপের বাণিজ্যিক নির্বাহী আতিকুর রহমান, কসকো বাংলাদেশ শিপিং লাইনস লিমিটেডের ব্যবস্থাপক(করপোরেট, বিক্রয় ও বিপণন) একে আজাদ এবং একটি ডেভেলপার কোম্পানির কর্মকর্তা মোস্তফা কামাল।

এদের মধ্যে সোহেলকে ৩০ জুন পাঁচ দিনের রিমান্ডের আদেশ দেন আদালত। এছাড়া গত বৃহস্পতিবার আতিকুর রহমান, একে আজাদ ও মোস্তফা কামালকে ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুরের দিন থেকেই জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আমাদের হেফাজতে নিয়েছি।

ডিবি পুলিশের সহকারী কমিশনার মো. কামরুজ্জামান জানান, অনুসন্ধান টিমের সদস্যদের নিয়ে শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় জরুরি বৈঠকে বসেছেন নগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) দেবদাস ভট্টাচার্য।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তরল কোকেন সন্দেহে গত ৬ জুন রাতে চট্টগ্রাম বন্দরে একটি কনটেনার সিলগালা করে শুল্ক গোয়েন্দা কর্মকর্তারা। ৮ জুন ১০৭টি ড্রামের প্রতিটিতে ১৮৫ কেজি করে সানফ্লাওয়ার তেল পাওয়া যায়। তেলের নমুনায় প্রাথমিক পরীক্ষা করে কোকেনের অস্তিত্ব পাওয়া না গেলে উন্নত পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়। ২৭ জুন শুল্ক গোয়েন্দা অধিদফতর কেমিক্যাল পরীক্ষায় একটি ড্রামে তরল কোকেনের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে বলে জানায়।

২৮ জুন নগরীর বন্দর থানার উপ-পরিদর্শক ওসমান গনি বাদী হয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ১৯ এর ১(খ) ধারায় নগরীর খাতুনগঞ্জের জাহান আলী লিমিটেডের চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ ও সোহেলকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন।






মন্তব্য চালু নেই