মেইন ম্যেনু

কোন অস্বস্তিকর প্রশ্নে রাহুলের পাশে বসেই মেজাজ হারালেন মমতা?

মোদী সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনের রূপরেখা তৈরি করতে দিল্লিতে কংগ্রেসের ডাকা বৈঠকে যোগ দিয়েছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এর পরে সাংবাদিক বৈঠকেও শুরু থেকেই বলার জন্য মমতাকেই এগিয়ে দিয়েছিলেন রাহুল গাঁধী। সবকিছু ভালই চলছিল। কিন্তু তাল কাটল রাহুল গাঁধীকে করা এক সাংবাদিকের প্রশ্নে। রাহুলকে প্রশ্ন করা হলেও মেজাজ হারালেন মমতা। কার্যত ধমকে দিলেন প্রশ্নকর্তাকে। সাংবাদিক বৈঠকে শুরু থেকেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সমালোচনা করছিলেন মমতা-রাহুল। নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে দুর্নীতি নিয়ে সরব হন তাঁরা।

ততক্ষণে মমতা বেশ কিছুক্ষণ বলার পরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছিলেন রাহুল গাঁধী। আচমকাই এক সাংবাদিক রাহুল গাঁধীকে তৃণমূলের বিরুদ্ধে ওঠা নানা দুর্নীতির অভিযোগ নিয়ে প্রশ্ন করেন। আর এতেই মেজাজ হারান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাহুলকে কার্যত চুপ করিয়ে দিয়ে চড়া সুরে প্রশ্নের উত্তর দিতে শুরু করেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। সাংবাদিককে তিনি পাল্টা প্রশ্ন করেন, কেন তৃণমূল কংগ্রেসকে নিয়ে রাহুলকে প্রশ্ন করা হচ্ছে? সঙ্গে তিনি আরও বলেন, তৃণমূল অত্যন্ত স্বচ্ছ দল। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীই চক্রান্ত করে তৃণমূলকে বদনাম করার চেষ্টা করছেন। তাঁর আরও দাবি, এমন প্রশ্ন করেই ওই সাংবাদিকদের মতো কয়েকজন দেশকে ভুল বোঝানোর চেষ্টা করছেন।

মমতার এই চড়া মেজাজ দেখে এর পরে ওই সাংবাদিক তো বটেই, স্বয়ং রাহুল গাঁধীও বিষয়টি নিয়ে আর কোনও উচ্চবাচ্য করেননি। চুপ করে যান প্রশ্নকর্তাও। অস্বস্তিকর প্রশ্নে স্বাভাবিক ভাবেই তাল কাটে সাংবাদিক বৈঠকের।






মন্তব্য চালু নেই