মেইন ম্যেনু

কোন দেশে কত পরমাণু বোমা?

যদি প্রশ্ন ওঠে যে পৃথিবীর সবচেয়ে ভয়ানক অস্ত্র কী? তাহলে প্রথমেই যে অস্ত্রের নাম সবার মাথায় আসবে সেটা হলো পারমাণবিক বোমা। বর্তমানে বিশ্বে নয়টি দেশের কাছে মোট ১০ হাজার ৩০০ পারমাণবিক বোমা আছে৷

তবে ১৯৮৫ সালে বিশ্বে মোট ৬৮ হাজার সক্রিয় পরমাণু বোমা ছিল। তাঁর পর থেকে বিশ্বব্যাপী পরমাণু অস্ত্র হ্রাসকরণ চুক্তির আওতায় প্রতিবছরই কমেছে এ মারণাস্ত্র। তবে এখনো বিশ্বে যে পরিমাণ পরমাণু বোমা মজুদ আছে তা দিয়ে গোটা বিশ্বকে ৩৮ বার পুরোপুরি ধ্বংস করা যাবে বলে জানিয়েছে স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউট (এসইপিআরআই)।

এসইপিআরআইয়ের তথ্য অনুযায়ী দেখে নিন অস্ত্রের দিক দিয়ে বিশ্বের পরমাণু শক্তিধর কোন দেশের কাছে কতগুলো পারমাণবিক বোমা মজুদ আছে :

১. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র

বিশ্বে প্রথম পরমাণু বোমা প্রস্তুতকারক দেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এবং যুক্তরাষ্ট্রই একমাত্র দেশ যারা এটা যুদ্ধেও ব্যবহার করেছে৷ এসইপিআরআইয়ের তথ্যমতে দেশটির এখন চার হাজার ৫০০ পরমাণু বোমা আছে। যার মধ্যে এক হাজার ৯০০ বোমা সক্রিয়।

২. রাশিয়া

১৯৪৯ সালে প্রথম পারমাণবিক পরীক্ষা চালিয়েছিল রাশিয়া। দেশটিতে বর্তমানে চার হাজার ৯০০ পারমাণবিক বোমা আছে। যার মধ্যে এক হাজার ৭৮০টি বোমা সক্রিয়।

৩. ফ্রান্স

ফ্রান্সের কাছে পরমাণু ওয়ারহেড আছে তিনশর মতো৷ যার মধ্যে অন্তত ২৯০টি সক্রিয়া বোমা। দেশটির পারমাণবিক বোমার বেশির ভাগই রয়েছে সাবমেরিনে৷ এ ছাড়া দেশটির অন্তত একটি সাবমেরিন সবসময় পারমাণবিক বোমা নিয়ে টহল দেয়৷

৪. যুক্তরাজ্য

২১৫টি পরমাণু বোমা রয়েছে যুক্তরাজ্যের কাছে৷ যার মধ্যে ১৫০টি বোমা এখনো সক্রিয়। জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য এই দেশ ১৯৫২ সালে প্রথম পরমাণু পরীক্ষা চালায়৷

৫. চীন

২৬০টি পরমাণু বোমা আছে চীনের৷ তবে দেশটির সক্রিয় পরমাণু বোমার সংখ্যাটি অজানা। রাশিয়া বা যুক্তরাষ্ট্রের তুলনায় সংখ্যাটা কম হলেও দেশটি ধীরে ধীরে এই সংখ্যা বাড়াচ্ছে৷ স্থল, আকাশ বা সমুদ্রপথে এসব বোমা ছোঁড়া সম্ভব৷

৬. পাকিস্তান

পাকিস্তানের কাছে রয়েছে ১২০ থেকে ১৩০টি পরমাণু বোমা৷ সাম্প্রতিক সময়ে পরমাণু বোমার সংখ্যা বাড়িয়েছে দেশটি৷ অনেকেই আশঙ্কা করেন, প্রতিবেশী দেশ ভারতের সঙ্গে দেশটির লড়াই কোনো একসময় পারমাণবিক যুদ্ধে রূপ নিতে পারে৷

৭. ভারত

ভারত প্রথম পরমাণু পরীক্ষা চালায় ১৯৭৪ সালে৷ দেশটির কাছে ১১০ থেকে ১২০টি পরমাণু বোমা রয়েছে৷ ভারত অবশ্য জানিয়েছে, তারা আগে কোনো দেশকে আঘাত করবে না। আর যেসব দেশের পরমাণু বোমা নেই, সেসব দেশের বিরুদ্ধে তারা এ ধরনের বোমা ব্যবহার করবে না৷

৮. উত্তর কোরিয়া

বিশ্বে উত্তর কোরিয়ার পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে সবচেয়ে বেশি ধোঁয়াশা আছে। তবে এখন পর্যন্ত প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, উত্তর কোরিয়ার কাছে ১০টির কম পরমাণু বোমা রয়েছে৷ তবে দেশটির নিজেদের এ ধরনের বোমা তৈরির সক্ষমতা রয়েছে কি না, তা নিশ্চিত নয়৷

৯. ইসরায়েল

ইসরায়েল অবশ্য নিজের দেশের পরমাণু কর্মসূচি সম্পর্কে তেমন কিছু জনসমক্ষে প্রকাশ করে না৷ তবে দেশটির কাছে ষাট থেকে ৪০০টির মতো পরমাণু ‘ওয়ারহেড’ আছে বলে ধারণা করা হয়৷






মন্তব্য চালু নেই