মেইন ম্যেনু

কৌশিকের হাত ধরে ফিরছেন তিন্নি?

২০০৬ সালে ‘সেই তুমি’ শিরোনামে একটি নাটকে মডেল ও অভিনেত্রী তিন্নিকে নিয়ে কাজ করেছিলেন নির্মাতা কৌশিক শংকর দাশ। সেই থেকে দু’জনের বন্ধুত্বের সূচনা। তারপর কেটে গেছে অনেকগুলো বছর। এর মধ্যে ব্যক্তিজীবনের নানা জটিলতার ফেরে পড়ে মিডিয়া থেকে অনেক দূরে সরে গিয়েছেন তিন্নি। তাতে কি? ঈদ উপলক্ষে একটি রেঁস্তোরায় হঠাৎ দেখা মিললো তাদের।

সম্প্রতি ঈদুল ফিতর উপলক্ষে নিজের ছোট মেয়েকে নিয়ে রাজধানীর একটি রেঁস্তোরায় খেতে গিয়েছিলেন নির্মাতা কৌশিক শংকর দাশ। একই সময় সেখানে হাজির হয়েছিলেন মডেল ও অভিনেত্রী শ্রাবস্তী দত্ত তিন্নি। সঙ্গে ছিলো তার একমাত্র মেয়ে ওয়ারিশা। পুরনো বন্ধু ও নির্মাতা কৌশিক শংকর দাশকে পেয়ে আপ্লুত তিন্নি ডুবে গেলেন আড্ডায়। বললেন-না বলা অনেক কথা। আবার ছবি তুলে ফেসবুকে অনেকদিন পর নিজেন মুখ ‍উন্মোচন করলেন প্রকাশ্যে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে কৌশিক শংকর দাশ বলেন, ‘তিন্নি আমার প্রথম নাটকের নায়িকা। সেই থেকে তার সঙ্গে বন্ধুর মতো সর্ম্পক। যদিও র্দীঘদিন ধরে তিন্নির সঙ্গে যোগাযোগ ছিলনা আমার। রেস্টুরেন্টে দেখা হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে গল্পের ঝাঁপি খুলে বসলাম দু’জনে।’

কৌশিক বললেন, ‘তিন্নির কাছে জানতে চেয়েছিলাম, সে আবার অভিনয়ে ফিরবে কিনা। সে বলেছে তার ইচ্ছা আছে।’

এদিকে ঈদ নাটকের ব্যস্ততা সেরে কৌশিক নতুন নাটক নির্মাণের কথা ভাবছেন। জানালেন, ব্যাটে বলে মিললে তার নাটকে দেখা যেতে পারে তিন্নিকে। তিন্নিরও এ ব্যপারে সায় আছে বলে ইঙ্গিতে জানালেন এ নির্মাতা।

উল্লেখ, ২০০৬ সালে অভিনেতা আদনান ফারুক হিল্লোলকে ভালোবেসে বিয়ে করেন তিন্নি। বিয়ের বছর কিছুদিনের মধ্যেই এই দম্পতির ঘরে জন্ম নেয় একমাত্র মেয়ে ওয়ারিশা। কিন্তু দাম্পত্য কলহের জের ধরে ২০১২ সালে দুজনে বিবাহ বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নেন। তারপর থেকেই অভিনয় জগত থেকে একটু একটু করে দূরে সরে যান এই অভিনেত্রী। তিন্নি সর্বশেষ ‘এই মায়া’ শিরোনামের একটি টেলিছবিতে অভিনয় করেছিলেন। শাহরিয়ার নাজিম জয়ের লেখা নাটকটি পরিচালনা করেছিলেন চয়নিকা চৌধুরী।






মন্তব্য চালু নেই