মেইন ম্যেনু

“ক্ষুধায় ঘুম আসেনা স্যার! দেশে গিয়া হালচাষ করে খামু, আমারে নিয়া যান স্যার”

বাংলাদেশ দূতাবাস, মালেশিয়ার সদয় দৃষ্টি আকর্ষণপূর্বকঃ

নেত্রকোণার নাজমুল দীর্ঘ আট বছর ধরে বৈধভাবে মালেশিয়ার প্রত্যন্ত অঞ্চলে বাগানীর কাজ করে আসছেন। একসময় ভালো বেতনও পেয়েছেন। সাড়ে তিন একর বাগান পরিচর্যা বাবদ ওভারটাইমসহ দিনপ্রতি ৭৫ রিংগিটও আয় করেছেন। সম্প্রতি মালীক বেতন কমাতে কমাতে দিনপ্রতি ১৫ রিংগিটে নামিয়ে এনেছেন, যা দিয়ে তার খাবার খরচও হয়না। নাজমুল দেশে চলে আসতে চাইলে তার গত কয়েকমাসের বেতন ও পাসপোর্ট আটকিয়ে দেয় মালীক। থানায় অভিযোগ করলে পুলিশ হাসে।

নাজমুল এম্বেসী চিনেন না, কারও নাম্বারও জানেননা। কেউ একজন তাকে এই পেইজের নম্বর দিয়েছে। ফোনে অভুক্ত নাজমুল কান্নার শক্তিও পাচ্ছিলেননা। অশিক্ষিত নাজমুল এই শিক্ষিত দাসত্ব থেকে মুক্তি চান। পাসপোর্ট নিয়ে বৈধভাবে বাংলাদেশে ফেরত এসে মাথা উঁচু করে হালচাষ করে জীবন ধারণ করতে চান…

“কয় বেলা না খাইয়া আছি জানিনা স্যার, ক্ষুধায় ঘুম আসেনা স্যার… দেশে গিয়া হালচাষ করে খামু, আমারে নিয়া যান স্যার…”

– নাজমুল (+601115794162)

magire






মন্তব্য চালু নেই