মেইন ম্যেনু

খালেদাকে নিয়ে সংসদে সরকার দলীয় এমপির অশ্লীল বক্তব্য

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া, দলটির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান ও তারেক রহমানকে নিয়ে জাতীয় সংসদে অশ্লীল বক্তব্য রাখলেন আওয়ামী লীগের সংরক্ষিত আসনের এমপি ফজিলাতুন নেসা বাপ্পি। এসময় তিনি খালেদা জিয়ার চরিত্র নিয়ে কথা বলেন। এছাড়া তিনি অনেক অসংসদীয় ভাষা ব্যবহার করলেও বৈঠকের সভাপতিত্বে থাকা ডেপুটি স্পিকার তার ‘সুন্দর’ বক্তব্যের জন্য ধন্যবাদ জানান।

বুধবার দুপুরে প্রস্তাবিত বাজেটের উপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে এসব কথা বলেন তিনি। এসময় সংসদের বৈঠকের সভাপতিত্বে ছিলেন ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া।

বাপ্পি বলেন, জিয়া ছিল পাকিস্তানের গুপ্তচর। কখনও যুদ্ধ করে নাই। ওই জিয়ার স্ত্রী খালেদা বলে, জিয়া নাকি স্বাধীনতার ঘোষক। আমি খালেদাকে দুইটা প্রশ্ন করতে চাই। বেগম খালেদা জিয়া মুক্তিযুদ্ধের ৯ মাস পাকিসেনা জান জুয়ার বাহুলগ্না হয়ে আপনি কোন যুদ্ধটি করেছিলেন, বলবেন কিনা। আর আপনার পুত্র তারেক আপনাকে কার সঙ্গে, কি অবস্থায় দেখে গুলি করেছিল। আর ওই গুলি আপনার পায়ে লেগেছিল, সেটিও বলবেন কিনা আমরা জানতে চাই।

তিনি বলেন, বাঙালি জাতি বিজয়ী জাতি। কোনো অশুভ শক্তির কাছে মাথা নত করে না বাঙালি। বাঙলার জনগণ ওই খুনি খালেদার পেট্রোলবোমা, আগুন দিয়ে মানুষ পুড়িয়ে মারা প্রত্যাখ্যান করেছে, প্রতিরোধ করেছে। এবারও গুপ্তহত্যা প্রতিরোধ করছে। বাংলার মানুষ জেগে উঠেছে। কোনো হুমকি ধামকি গুপ্তহত্যার নীল নকশা আমাদের অগ্রযাত্রাকে রোধ করতে পারবে না। সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর জিরো টলারেন্স নীতি সমগ্র বিশ্বে প্রশংসিত হয়েছে।

এর আগে তিনি বিএনপির সিনিয়র ভাইস-চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে গ্রেফতার করার দাবি জানিয়ে বলেন, বিএনপি নেত্রীর কুলাঙ্গার পুত্র দুর্নীতিবাজ তারেক রহমান সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। জামায়াত-শিবিরকে নিয়ে খালেদা জিয়া-তারেক রহমানরা গুপ্তহত্যা করে দেশের অগ্রযাত্রাকে থমকে দিতে চান।

এরপর ডেপুটি স্পিকার বলেন, ‘ধন্যবাদ ধন্যবাদ মাননীয় সদস্য আপনার সুন্দর বক্তব্যের জন্য।’






মন্তব্য চালু নেই