মেইন ম্যেনু

খালেদার জন্য জাতীয় সংসদে গান উৎসর্গ

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্য করে জাতীয় সংসদে সুরেলা কন্ঠে গান গেয়ে প্রসংসা কুড়ালেন এক এমপি। রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাবের উপর আলোচনায় অংশ নিয়ে প্রখ্যাত কণ্ঠশিল্পী ভূপেন হাজারিকার গান গেয়ে মুগ্ধতা ছড়ান জাসদের এমপি নাজমুল হক প্রধান।

মঙ্গলবার রাতে জাতীয় সংসদে এ ঘটনা ঘটে। বর্তমান সরকার বিভিন্ন উন্নয়নমুলক কর্মকান্ডের ফলে দেশের কৃষক শ্রমিক থেকে শুরু করে সবার উন্নয়ন বুঝাতে পঞ্চগড়ের এই এমপি সুরে সুরে গেয়ে ওঠেন ভূপেন হাজারিকার বিখ্যাত গান- ‘শরৎবাবু খোলা চিঠি দিলাম তোমার কাছে। তোমার গফুর মহেশ এখন কোথায় কেমন আছে, তুমি জানো না’।

তার এ গান পরিবেশনের সময় নিজ দলের সভাপতি তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, ওয়াকার্স পার্টির সভাপতি ও বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেননসহ উপস্থিত সংসদ সদস্যদের হাসি মুখে টেবিল চাপড়িয়ে মুগ্ধতা প্রকাশ করেন। এ সময় সভাপতির চেয়ারে বসা ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়াও তার গান মুগ্ধ হয়ে শোনেন।

গান শেষে নাজমুল হক প্রধান বলেন, দেশ ভাগের আগে একটি বিরাট আকাল হয়েছিল। সেই আকালে অসংখ্য লোক না খেয়ে মারা গিয়েছিলেন। আমাদের দেশেরই একজন শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদীন একটি শিল্পকর্ম দিয়ে বিশ্ববাসীকে বুঝিয়ে দিয়েছিলেন কী পরিমাণ আকাল হয়েছিল। এখনও খরা বন্যা আছে কিন্তু দুর্ভিক্ষ ও আকাল নেই। এখনও আইলার মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগ আছ। কিন্তু সবগুলো মোকাবেলা করে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। সেই সময় এই দুর্ভিক্ষ নিয়ে যেমন চিত্রকর্ম হয়েছিল। তেমনি সাহিত্য রচনাসহ সিনেমাও হয়েছে।

তিনি বলেন, আমার বিশ্বাস বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার কাজের কারণে বাংলার মানুষ আজকে সুখে আছে। শুধু মানুষ নয় আমরা পশুকেও ভিটামিন খাওয়াই। এটা স্বর্গে যারা আছেন তারা বুঝছেন এবং গোটা বিশ্বের মানুষ বুঝছেন। কিন্তু বুঝছেন না একজন, তিনি খালেদা জিয়া। এই ভাষার মাসেও তিনি শহীদ মিনারে গিয়ে ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছেন। তিনি বাংলাদেশের উন্নতি চোখে দেখেন না। কারণ তার মনটা পড়ে আছে পাকিস্তানে।






মন্তব্য চালু নেই