মেইন ম্যেনু

‘খুলনা-কোলকাতা রেলপথ দ্রুত চালু’

বেনাপোল-পেট্রাপোল সীমান্ত দিয়ে দু’দেশের মধ্যে ব্যবসা-বাণিজ্য সম্প্রসারণের জন্য দ্রুত খুলনা-কোলকাতা রেলপথ চালুর ব্যাপারে পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা। শুক্রবার যশোরের রামকৃষ্ণ আশ্রম ও মিশন এবং বেনাপোল বন্দর পরিদর্শনে শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

ভারতীয় হাই কমিশনার বলেন, ‘বেনাপোল বন্দর দিয়ে উভয় দেশের বাণিজ্যকে সহজ করতে দুই দেশ একসাথে কাজ করছে। অচিরেই বাংলাদেশি ছোট বড় সব ধরনের ব্যবসায়ীদের ৫ বছরের ভিসা প্রদান করা হবে। যশোরে একটি ভিসা কেন্দ্র স্থাপনের চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে।’

তিনি স্বাধীনতা যুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধাদের সহযোগিতার কথা উল্লেখ করে বলেন, অন্যান্য দেশের চেয়ে বাংলাদেশ ভারতের সবচেয়ে ভাল বন্ধুপ্রতিম দেশ। তাই এ দেশের সঙ্গে ব্যবসা-বাণিজ্য আরো গতিশীল হবে। এরই ধারাবাহিকতায় ইতোমধ্যে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দু’দেশের প্রধানমন্ত্রী পেট্রাপোলে ‘সুসংহত চেকপোস্টের’ উদ্বোধন করেছেন। বেনাপোল-পেট্রাপোল বন্দর দিয়ে যাতে দু’দেশের ব্যবসা বাণিজ্যের গতি আরো বৃদ্ধি পায় সে ব্যাপারে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

বেনাপোল সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশন মিলনায়তনে দুপুরে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন ভারতীয় হাই কমিশনার। এ সময় দু’দেশের বন্দরে বিরাজমান বিভিন্ন সমস্যা তুলে ধরে বক্তব্য দেন—অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মফিজুর রহমান সুজন ও সাধারণ সম্পাদক এমদাদুল হক লতা।

এরপর তিনি বেনাপোল রেলস্টেশন পরিদর্শন করেন। চেকপোস্ট পরিদর্শন শেষে তিনি বেনাপোলের ওপারে ভারতীয় বাংলাদেশ-ভারত বন্দরের লিংক রোড পরিদর্শন করে ইন্টিগ্রেটেডে চেকপোস্টে বন্দর ও কাস্টমস স্টেশনে যান। সেখানে তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান ভারতীয় কাস্টমসের সহকারী কমিশনার প্রলামা। এ সময় ভারতীয় চেকপোস্টে তিনি বিভিন্ন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক শেষে বেলা ২টার দিকে নড়াইলের উদ্দেশে বেনাপোল ত্যাগ করেন।






মন্তব্য চালু নেই