মেইন ম্যেনু

খেলার কথা বলে ধর্ষণ যখন ধর্ষিতার বয়স ৬বছর ও ধর্ষকের ৯!

কত রকম ভাবেই ধর্ষণের ঘটনা ঘটছে ! এবার ধর্ষক ধর্ষিতা উভয়েই নাবালক। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশ রাজ্যে। রাজ্য পুলিশের নথি বলছে, এর আগে এত কমবয়সি কারও বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠেনি, যেখানে ধর্ষকের বয়স মাত্র ৯ বছর! ছয় বছরের এক নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে পিলিভিটের মৈথি থেকে ওই বালককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, নাবালিকার মেডিক্যাল পরীক্ষায় ধর্ষণের প্রমাণ মিলেছে। গ্রেপ্তারের পর তাকে পাঠানো হয়েছে বরেলির জুভেনাইল হোমে। এই ঘটনার যিনি তদন্ত করছেন, সেই সার্কেল ইন্সপেক্টর নির্মল বিষ্ট জানিয়েছেন, অভিযুক্তকে ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে পেশ করা হলে, তিনি জুভেনাইল হোমে পাঠানোর নির্দেশ দেন। অভিযুক্ত বালক নিজের অপরাধের কথা স্বীকার করেছে। মেডিক্যাল পরীক্ষাতেও অভিযোগের প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে। অভিযুক্ত বালকের বয়স সম্পর্কে নিশ্চিত হতে, পরীক্ষা করা হবে।

তবে, পুলিশের দাবি, বয়স ১০ বছরের বেশি কখনোই নয়। পুলিশের কাছে দায়ের হওয়া অভিযোগ অনুযায়ী, ঘটনাটি ঘটে বৃহস্পতিবার।

ওই নাবালিকার দাদা জানান, সে চকোলেট কিনতে গিয়েছিল। রাস্তায় ওই বালকের সঙ্গে দেখা হলে, ওকে খেলার কথা বলে। এরপরেই তাকে একটা মাঠে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে ওই বালক। মেয়েটি ঘরে ফিরে যন্ত্রণায় কাঁদছিল, রক্তও ঝরছিল। সন্দেহ হওয়ায়, জিগ্যেস করতেই সে ঘটনার কথা জানায়।

ঘটনা জানাজানি হওয়ার পরই অভিযুক্ত ওই বালককে নিয়ে তার পরিবার গা ঢাকা দেয়। শুক্রবার পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। পুলিশের জেরায় অভিযুক্তের প্রথম প্রতিক্রিয়া, খেলতে খেলতে কী ভাবে ঘটে গিয়েছে। পুলিশের এখনও বিশ্বাসই হচ্ছে না, বছর নয়েকের কোনো নাবালক এমন ঘটনা ঘটাতে পারে






মন্তব্য চালু নেই