মেইন ম্যেনু

গণতন্ত্র ‘পুনরুদ্ধারে’ শপথ নিয়েছে বিএনপি

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। বেলা সোয়া এগারোটার পর চন্দ্রিমা উদ্যানে জিয়ার সমাধি সৌধে দলের নেতা-কর্মীদের নিয়ে এই শ্রদ্ধা জানান। এ সময় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, দেশে এখন গণতন্ত্র নেই। আর এই গণতন্ত্র তারা ফিরিয়ে আনবেন।

১৯৭৮ সালের ১ সেপ্টেম্বর রাষ্ট্রক্ষমতায় থাকাকালে জিয়াউর রহমান বিভিন্ন রাজনৈতিক মত ও পথের অনুসারীদের এক মঞ্চে এনে বিএনপি প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯৮১ সালের ৩০ মে চট্টগ্রামে এক ব্যর্থ সামরিক অভ্যুত্থানে জিয়াউর রহমান নিহত হলেও তার প্রতিষ্ঠিত দলটি এখনও দেশের প্রধান দুটি দলের একটি।

দলের প্রতিষ্ঠাতার প্রতি শ্রদ্ধা জানানো শেষে বিএনপির পক্ষ থেকে মোনাজাত করা হয়। এই আয়োজনে খালেদা জিয়া কোনো কথা বলেননি। দলের পক্ষ থেকে কথা বলেন মির্জা ফখরুল।

মির্জা ফখরুল বলেন, স্বাধীনতার ৪৪ বছর পরও দেশে গণতন্ত্র এখন অনুপস্থিত। তিনি বলেছেন, ‘প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে আমরা গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের শপথ নিয়েছি। আমরা আশা করি বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে আমরা গণতন্ত্র ও মানুষের অধিকার ফিরিয়ে আনতে সক্ষম হবো।’

সেনাপ্রধান থাকা অবস্থায় জিয়াউর রহমানের রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব নেয়া এবং ক্ষমতায় থেকে রাজনৈতিক দল গঠন নিয়েও কথা বলেন মির্জা ফখরুল। তিনি বলেন, ‘৭৫ শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার পর যখন দেশে রাজনৈতিক শূন্যতা বিরাজ করছিলো তখন দূরদর্শিতার পরিচয় দিয়ে জিয়াউর রহমান বিএনপির প্রতিষ্ঠা করেন।’

ফখরুল বলেন, ‘বর্তমান সরকার বিএনপিকে নির্মূল করতে চায়। কিন্তু সরকার জানে না তারা নির্যাতন, নিপীড়ন করে বিএনপিকে ধ্বংস করতে পারবে না।’

বেলা সোয়া ১১টার দিকে খালেদা জিয়া জিয়াউর রহমানের সমাধি প্রাঙ্গণে উপস্থিত হন। পরে বেলা ১১টা ২০ মিনিটের সময় জিয়ার সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান তিনি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, খন্দকার মোশাররফ হোসেন, জমির উদ্দিন সরকার, মওদুদ আহমেদ, মির্জা আব্বাস, আ স ম হান্নান শাহ, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, সেলিমা রহমান, মো. শাহাজাহান, আমানউল্লাহ আমান, আহমেদ আজমসহ দলের কেন্দ্রীয় ও মহানগরের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী।

দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বিএনপির নেতা-কর্মীরা ছিলেন উৎফুল্ল। তাদের হাতে ছিলে বিভিন্ন রঙ বেরঙের ব্যানার, ফেস্টুন।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার পর সেনাবাহিনীতে অভ্যুত্থান-পাল্টা অভ্যুত্থানের এক পটভূমিতে ৭ নভেম্বর ক্ষমতার কেন্দ্রে চলে আসেন জিয়াউর রহমান।






মন্তব্য চালু নেই