মেইন ম্যেনু

গত বছর সাড়ে ৫ লাখ কর্মী বিদেশে গেছে

২০১৫ সালে ৫ লাখ ৫৫ হাজার ৮৮১ জন বাংলাদেশি কর্মী বিদেশে গমন করেছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এটা বর্তমান সরকারের কূটনৈতিক সফলতা বলেও মনে করেন তিনি।

বুধবার বিকেলে দশম জাতীয় সংসদের নবম অধিবেশনে ভোলা-২ সংসদীয় আসনের আলী আজমের প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিগত জোট সরকারের অপনীতির কারণে বাংলাদেশের শ্রম বাজার সংকুচিত হয়েছিল। আওয়ামী লীগ সরকারের সফল কূটনৈতিক প্রচেষ্টায় মালয়েশিয়াসহ মধ্যপ্রাচ্যেও বিভিন্ন দেশের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক চুক্তিসহ বিভিন্ন চুক্তি সম্পাদন করা হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, প্রতিবছর বাংলাদেশ থেকে কর্মী পাঠানোর সংখ্যা ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পাচ্ছে। বিগত জোট সরকারের আমলে বিশ্বের মাত্র ৯৭টি দেশে কর্মী পাঠানো হতো। বতর্মান সরকারের আমলে নতুন আরো ৬৩টি দেশে শ্রমবাজার তৈরি করেছে। এ সংখ্যা বর্তমানে দাঁড়িয়েছে ১৬০।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ২০১৩ সালে মোট ৪ লাখ ৯ হাজার ২৫৩ জন, ২০১৪ সালে মোট ৪ লাখ ২৫ হাজার ৬৮৪ জন এবং ২০১৫ সালে মোট ৫ লাখ ৫৫ হাজার ৮৮১ জন বাংলাদেশি কর্মী গমন করেছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

‘বিদেশে অদক্ষ শ্রমিকের তুলনায় দক্ষ শ্রমিকের চাহিদা বেশি’ উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন,‘ এক্ষেত্রে বিদেশগামী শ্রমিকদের দক্ষতার ওপর গুরুত্ব দিয়ে বর্তমানে দেশে ৬৫টি টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টার ও ৬টি মেরিন টেকনোলজি ইনস্টিটিউটের মাধ্যমে দক্ষ জনশক্তি তৈরি করা হচ্ছে। পাশাপাশি উপজেলা পর্যায়ে টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টার স্থাপনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন,‘ নতুন শ্রমবাজার সৃষ্টির লক্ষ্যে বিদেশে বাংলাদেশ দূতাবাসে বিদ্যমান শ্রম শাখার সংখ্যা ১৬ থেকে ২৮ এ উন্নীত করা হয়েছে। এছাড়া আমাদের সফল কূটনৈতিক প্রচেষ্টার ফলে সৌদি আরব এবং মালয়েশিয়ায় অবৈধ ১০ লাখ ৬৭ হাজার ৮০৩ জন অভিবাসী বাংলাদেশি শ্রমিকের বৈধতা প্রদানের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

অন্যদিকে সৌদি আরব অধিকসংখ্যক নারী কর্মীর পাশাপাশি তাদের নিকটাত্মীয় সমসংখ্যক পুরুষ কর্মী নিতে সম্মত হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।






মন্তব্য চালু নেই