মেইন ম্যেনু

গরমে ফল ও সবজি দীর্ঘসময় তাজা রাখার দারুণ কিছু টিপস!

গরমকাল আম,কাঁঠাল আর হাজারো মজার মজার খাবারের সময় হলেও মুদ্রার ঠিক উল্টো পাশেই গরমকাল সেই খাবারগুলোকে দ্রুত নষ্ট করে দেবারও সময়। আর তাই যেকোন খাবার রেখে দেওয়ার সময় এসময়ে সবার মাথায় কেবল একটা কথাই কাজ করে- নষ্ট হয়ে যাবে না তো? খাওয়া যাবে তো? ধীরে ধীরে গরম কিন্তু চলে এসেছে প্রায়। সবটা খাবারকে হয়তো বাঁচাতে পারবেননা আপনি গরমে। তবে তারপরেও যতটা অব্দি পারা যায় সেটুকু খাবার নষ্টের হাত থেকে বাঁচাতে পারেন আপনি। কি করে? চলুন তাহলে আপনার জন্যেই দিয়ে দিচ্ছি গরমে বেশি সময়ের জন্যে ফল ও সবজি ফ্রেশ রাখার চমৎকার কিছু কৌশল।

১. আলাদা করে রাখুন
কিছু পাকা সব্জি আর ফলের ভেতরে ইথিলিন নামক এক ধরনের গ্যাস উৎপন্ন হয় যেটা কিনা পাক ধরার সাথে সাথে তার শরীর থেকে নির্গত হতে শুরু করে। আর এই ইথিলিন নামক গ্যাসটিই অন্যসব ফল ও সব্জির ওপর বাজে প্রভাব ফেলে। তাদেরকে পচতে সাহায্য করে ( পপসুগার )। ইথিলিন গ্যাসযুক্ত ফলমূল ও সব্জির ভেতরে রয়েছে- অ্যাভাকাডো, আম, টমেটো, কলা ইত্যাদি। চেষ্টা করুন এগুলোর সাথে যাতে কোনভাবেই অন্য খাবার যেমন- গাজর, তরমুজ, ব্রকোলি, আপেল ইত্যাদি রাখা না হয়। এতে করে আপনার খাবারগুলোকে আরো একটু বেশি সময়ের জন্য তাজা পাবেন আপনি।

২. রেফ্রিজেরটরে রেখে দিন
কলা, পিচ, আম, অ্যাপ্রিকট, অ্যাভাকাডো, বাঙ্গীর মতন খাবারগুলো কাঁচা থাকা অবস্থায় ফ্রিজের বাইরে রাখুন। তবে পাকতে শুরু করলেই সেগুলোকে ফ্রিজে ভরে নিন। এতে করে সেগুলো বেশিদিন তাজা থাকবে। এক্ষেত্রে কলার বাইরের খোলসটা কালচে বাদামী রং নিতে পারে। তবে তাই বলে চিন্তার কিছু নেই। এর ভেতরের অংশটি ঠিক একইরকম থাকবে। ঠিক একই রকম কথা বলা যায় লেবুজাতীয় খাবারগুলোর ক্ষেত্রেও।

৩. অবস্থান বদলে দিন
একইভাবে কোন খাবারকে একই স্থানে রাখলে সেটা নষ্ট হতে বাধ্য। বিশেষ করে খাবারটি যদি হয় কোন ফল এবং ফলটি যদি হয় আপেল। সেক্ষেত্রে আপেলকে গরমে আরো বেশি সময় ধরে তাজা রাখতে প্রথমে আপেলের উপরের বোঁটাসহ পাতা ছিঁড়ে ফেলুন। এরপর সেটাকে উল্টো করে বসিয়ে দিন। তাতে আপেলের ভেতরে থাকা চিনির তারতম্য পরিবর্তিত হবে। আপেল তাজা থাকবে বেশিদিন।

৪. প্লাস্টিকের আবরণে মুড়ে দিন
সবুজ সবজি বা সালাদজাতীয় খাবারের ক্ষেত্রে একটি প্লাস্টিকের আবরণ দিয়ে খাবারটাকে মুড়ে নিন। এক্ষেত্রে সেগুলো অনেকদিন অব্দি ভালো অবস্থায় রাখতে পারবেন আপনি। এভাবে আর সব সব্জির পাশাপাশি লেটুসকে ছয় সপ্তাহ আর ব্রোকোলিকে সাত সপ্তাহ তাজা রাখতে পারবেন আপনি ( ইনহেবিটেট )।

৫. গরম খাবার ফ্রিজে রাখুন
অনেকেই খাবার একেবারে ঠান্ডা হয়ে যাওয়া অব্দি অপেক্ষা করে। তারপর সেটাকে ফ্রিজে ঢোকায়। কিন্তু আপনি কি জানেন যে এক্ষেত্রে খাবার নষ্ট হয়ে যাওয়ার প্রবণতা বেশি দেখা যায়? আর তাই সবজি বা ফল জাতীয় খাবার রান্না করলে খাবার খুব বেশি ঠান্ডা হয়ে যাওয়ার আগেই, হালকা গরম থাকতেই সেটাকে ফ্রিজে রেখে দিন আর ঠান্ডা হওয়ার সুযোগ দিন। অন্য খাবারের ক্ষেত্রেও এই উপায় অবলম্বন করতে পারেন। তবে খুব বেশি গরম খাবার ঢাকনা দিয়ে এঁটে ফ্রিজে ঢোকাবেন না যেন!






মন্তব্য চালু নেই