মেইন ম্যেনু

গরিবের ঈদ বাজার ফুটপাত

ঈদ মানে খুশি আর আনন্দ। আর সীমাহীন আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে চায় সমাজের নিম্নবিত্ত মানুষরাও। তাই সাধ্যের মধ্যে পছন্দের পোশাকটি কিনতে নগরীর ফুটপাত দোকানগুলোতে ভিড় করছে নিম্নবিত্ত ও দরিদ্র মানুষরা। দোকানীরাও ফুটপাতের দোকানগুলোতে নানা রঙের পোশাক সাজিয়েছেন।

ক্রেতারা বলছেন, দাম যেমনই হোক নতুন কাপড় তো। আমরা ছোট কাজ করি, আর আমাদের রোজগার কম। এমনিতেই খেয়ে না খেয়ে জীবন চালাতে হয়। এদিকে বিক্রেতারা বলছেন, অল্প দামের মধ্যে আমাদের এখানে ছোট বড় সব বয়সের মানুষের জন্য পোশাক পাওয়া যাচ্ছে।

নগরীর সাহেববাজার জিরোপয়েন্ট ও রেলগেটের ফুটপাতগুলোতে গেঞ্জি, প্যান্ট, শার্ট, শাড়ি, গায়ে দেয়া চাদর, লুঙ্গি, ছোট ও বড়দের ফতুয়া ইত্যাদি। এদিকে, কাপড়ের পাশাপাশি নিজেকে সাজাতে কসমেটিকসেও ঝুঁকছে নারীরা।

তাই সাহেববাজার আরডির সামনে ফুটপাতগুলোতে পোশাকের পাশাপাশি কসমেটিকসের দোকানও বসছে। এসব দোকানগুলোতে সিটি গোল্ডের চুড়ি, ঝুমকা, মালা, ব্যান্ড, চুল বাঁধা ফিতা, মেকাপ বক্স, কানের দুল, হাতের বালা, নেইলপালিস ইত্যাদি।

কাপড় কিনতে আসা আরিফ হোসেন বলেন, গরিবের বাজার ফুটপাত। কি করার, অল্প টাকার মধ্যে প্রয়োজনীয় জিনিস তো কেনা চাই। আমরা দিন আনি দিন খাই। কোনোমতে খেয়ে না খেয়ে আমাদের দিনপার হয়। ছেলেমেয়েদের জন্য কাপড় কিনতে এসেছি। দেখি সামর্থ্যরে মধ্যে যা পাওয়া যায় তাই কিনব।

বিক্রেতা রাসেদ আলী বলেন, এই দোকানগুলোতে মোটামুটি সব ধরনের কাপড়ের দাম কম। আর বড় দোকনগুলোতে কাপড়ের দাম বেশি। যারা খেটে খাওয়া মানুষ তারা তো আর হাজার টাকা দামের কাপড় কিনে পরতে পারবে না। এইজন্য তারা এখানে আসে কাপড় কিনতে।






মন্তব্য চালু নেই