মেইন ম্যেনু

গরুর হৃদপিন্ডের বাল্বে বৃদ্ধার নতুন জীবন

গরুর হৃদপিন্ডের বাল্ব থেকে নতুন জীবন পেলেন ৮১ বছরের এক বৃদ্ধা। রোববার চেন্নাইয়ের ফ্রোনশিয়ার লাইফ লাইন হাসপাতালে অস্ত্রোপচার করে গরুর বাল্বটি ওই বৃদ্ধার হৃদপিন্ডে প্রতিস্থাপন করা হয়েছে বলে জানিয়েছে এনডিটিভি।

এ ব্যাপারে হাসপাতালের চিকিৎসক ড. কে এম চেরিয়ান বলেন, ‘‘যাঁরা মহাধমনীর সরু হয়ে যাওয়ায় অস্ত্রোপচারের উচ্চ ঝুঁকিতে থাকেন এই পদ্ধতিটি সেরকম ওপেন হার্ট সার্জারির বিকল্প একটি পদ্ধতি।

চিকিৎসকরা আরো জানিয়েছেন, ১১ বছর আগে ওই বৃদ্ধার হৃদপিন্ডের বাল্ব প্রতিস্থাপন করা হয়েছিল। কিন্তু এ বছরের শুরুতে আবারও তাঁর হৃদপিন্ডে সমস্যা দেখা দেয়। এছাড়া তার শ্বাসকষ্টের সমস্যাও হচ্ছিল। এ কারনে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে গেলেও চিকিৎসকদের কাছে ইতিবাচক কোনো সাড়া পাননি তিনি। পরে এপ্রিলে তাকে চেন্নাইয়ের ওই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসকরা পরীক্ষা করে দেখেন যে তার মহাধমনীতে আগে যে বাল্বটি প্রতিস্থাপিত হয়েছিল সেটি সংকীর্ণ ছিল।

চিকিৎসকেরা বলেন, সাধারণত এ ধরনের সমস্যায় ওপেন হার্ট সার্জারি করা হয় এবং পুরোনো বাল্ব সরিয়ে নতুন করে তা প্রতিস্থাপন করা হয়। কিন্তু রোগীর বয়স বেশি হওয়ায় চিকিৎসকেরা ‘ইনভেসিভ’ পদ্ধতি বেছে নেন ওই বৃদ্ধার চিকিৎসার ক্ষেত্রে। এরপর গরুর হৃদপিন্ডের কলা বা টিস্যু দিয়ে তৈরি একটি জৈব-কৃত্রিম বাল্ব ব্যবহার করেন তাঁরা। অর্থাৎ পুরোনো বাল্বের বদলে নতুন করে বাল্ব প্রতিস্থাপন না করে একটি নতুন বাল্ব পুরোনোটির মধ্যেই স্থাপন করা হয়েছে। প্রায় তিন ঘণ্টা ধরে চারজন চিকিৎসকের একটি প্রতিনিধি দল এ অস্ত্রোপচার করেন। চিকিৎসকেরা জানান, অস্ত্রোপচারের পরে রোগীর অবস্থা স্বাভাবিক রয়েছে, এবং তাঁকে সাধারণ ওয়ার্ডে পাঠানো হয়েছে।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই