মেইন ম্যেনু

গরু গণনা ছাড়া কি সরকারের কোনো কাজ নেই?

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, গরু গণনা ছাড়া কি কেন্দ্রীয় সরকারের আর কোনো কাজ নেই? কেন্দ্রের গোরক্ষা কমিটির কর্মসূচিতে যোগদানে অস্বীকৃতি জানিয়ে আজ মঙ্গলবার এ কথা বলেন তিনি।

ভারতের রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের সহযোগী সংগঠন (আরএসএস) গো সুরক্ষা সমিতি গত রোববার রোববার থেকে পশ্চিমবঙ্গে গরু গণনা কার্যক্রম শুরু করেছে। আজ মঙ্গলবার সংখ্যালঘু কল্যাণ দপ্তরের অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বিজেপির মতলব শুধু প্ররোচনা দিয়ে দাঙ্গা বাঁধানো। কেন্দ্রীয় সরকার শুধু বিজ্ঞাপন দিয়ে নানা মৌলবাদী চিন্তাভাবনায় উসকানি দিচ্ছে। গুজরাট, উত্তরপ্রদেশে দলিত মুসলমানদের ওপর নির্যাতন চালানো হচ্ছে।’

স্বভাবসুলভ ঢঙে কেন্দ্রীয় সরকারকে আক্রমণ করে মমতা বলেন, ‘কেন্দ্রীয় সরকারের কাজটা কী? কোনো কাজ নেই। কাজ শুধু বিজ্ঞাপন দেওয়া। আর গরু গণনা করা।’

মমতা আরো বলেন, ‘বিজেপির কথায় কান দেবেন না। ওরা দাঙ্গা বাঁধাতে চাইছে। সারাক্ষণ টুইটার, ফেসবুকে ধর্মের নামে সুড়সুড়ি। আমরা প্রগতি চাই, দাঙ্গা চাই না। পশ্চিমবঙ্গের মানুষ দাঙ্গা ক্ষমা করে না। সব ধর্মই তো আমার ধর্ম। আমি হিন্দু হয়েই বলছি, এসব ভাগজোক আমরা চাই না। নিজের ধর্ম পালন করতে গিয়ে অন্যের অসম্মান করা ঠিক হবে না।’

মমতা বলেন,‘আমার দেশ হলো যৌথ পরিবারের মতো। সেই পরিবারের কোনো সদস্য খারাপ থাকলে দেশও ভালো থাকে না। আর তাই কেন্দ্রের জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সব ধর্মের মানুষকে একাট্টা হয়ে এগোতে হবে।’

এদিকে মমতার এই বক্তব্যের পর পশ্চিমবঙ্গে গো সুরক্ষা সমিতির সংগঠক সুব্রত দত্ত বলেন, গ্রামে গরু গণনার সময় গোপনীয়তা বজায় রাখা হবে। যেহেতু মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন গরু গণনায় বাধা দেওয়া হবে, তাই আমরা হামলার আশঙ্কা করছি।






মন্তব্য চালু নেই