মেইন ম্যেনু

গর্ভকালীন সময়ে এই খাবারগুলো ভুলেও খাবেন না

গর্ভধারণ প্রতিটি নারীর জন্য অনেক কাঙ্ক্ষিত এবং আনন্দের। কিন্তু এই সময়টাতে প্রত্যেক নারীকে কিছু সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। আর এই কারণে তাদেরকে থাকতে হয় অনেক বেশী সচেতন। বিশেষ করে খাবারে ক্ষেত্রে প্রয়োজন পড়ে বাড়তি সতর্কতার। এই সময়ের সামান্য একটি ভুল কিংবা অসাবধানতার কারণে ঘটে যেতে পারে যেকোন দূর্ঘটনা। গর্ভকালীন সময়ে মায়েদের অনেক পুষ্টিকর খাবার খেতে হয়, ঠিক তেমনি কিছু খাবার এড়িয়ে যেতে হয়। এমনি কিছু খাবারের তালিকা দেওয়া হল যা গর্ভবতী মহিলাদের এড়িযে যেতে হবে সতর্কতার সাথে।

১। অপাস্তুরিত দুধ, পনির

অপাস্তুরিত দুধ, পনির লিসটারিয়াস নামক ইনফেকশন সৃষ্টি করে। এটি গর্ভজাত শিশুর ক্ষতি করে থাকে। এইসময় অপ্রাস্তুরিত দুধ, পনির খাওয়া থেকে বিরত থাকা উচিত।

২। কাঁচা ডিম

প্রোটিনের প্রধান উৎস ডিম। গর্ভবতী মহিলাদের প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় একটি ডিম রাখা বাধ্যতামূলক। কিন্তু কাঁচা ডিম খাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। কাঁচা ডিমে আছে সালমোনেলা নামক একটি ব্যাকটেরিয়ার যা জ্বর,বমি বমি ভাব,ডায়রিয়া্র মত রোগের কারণ হতে পারে।

৩। ক্যাফিন

প্রচুর পরিমাণ কফি পান শিশুর স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। অতিরিক্ত কফি পান অনেক সময় গর্ভপাত করে থাকে। ক্যাফিন শরীরের আয়রন শুষে নেয় যা অ্যানেমিয়া বা রক্ত স্বল্পতা সৃষ্টি করে। প্রতিদিন ২০০ মিঃগ্রা এর চেয়ে কম ক্যাফিন খাও্য়া যেতে পারে। এক কাপ কফিতে থাকে ৯৫ মিঃগ্রা ক্যাফিন আর এক কাপ চায়ে থাকে ৪৭ মিঃগ্রা ক্যাফিন।

৪। কাঁচা বা আধা পাকা পেঁপে

কাঁচা বা আধা পাকা পেঁপে গর্ভবতী মহিলাদের জন্য অনেক ক্ষতিকর। কাঁচা পেঁপেতে ল্যাকট্রিক্স নামক একটি উপাদান আছে যা গর্ভপাতের মত ঘটনা ঘটিয়ে থাকে। আঙ্গুরও এই সময় খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। এটি পেট গরম করে ডায়ারিয়া সৃষ্টি করে।

৫। গ্রিন টি

অধিকাংশ নারীরা মনে করেন গ্রিন টি স্বাস্থ্যের জন্য ভাল। এটি সত্য গ্রিন টি স্বাস্থ্যের জন্য ভালো,তবে তা গর্ভবতী নারীদের জন্য নয়। এটি মেটাবলিজম বৃদ্ধি করে যা হজমে সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে। গ্রিন টি ওজন বৃদ্ধিতে বাঁধা প্রদান করে থাকে।

৬। এলকোহল সমৃদ্ধ খাবার

এটি আপনার আনাগত সন্তানের বিভিন্ন অঙ্গ যেমন ব্রেইন,নার্ভ ইত্যাদি তৈরিতে বাধা সৃষ্টি করে। শুধু এলকোহল নয় যে সকল খাবারে এলকোহল থাকে তা খাওয়া থেকেও বিরত থাকতে হবে।






মন্তব্য চালু নেই