মেইন ম্যেনু

গাইবান্ধায় পুলিশ সদস্যের স্ত্রী-মেয়ের রহস্যজনক মৃত্যু

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে পুলিশ কনস্টেবল পরিমল চন্দ্র রায়ের স্ত্রী কৃষ্ণা রানী রায় (২৫) ও তার মেয়ে অর্পিতা রানীর (২১ মাস) রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। পরিমল সুন্দরগঞ্জ থানায় কর্মরত।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে সুন্দরগঞ্জ পৌর এলাকার বামনজল এলাকার একটি ভাড়া বাসা থেকে পুলিশ তাদের লাশ উদ্ধার করে।

পরিমলের বাড়ি ঠাকুরগাঁও জেলার পীরগঞ্জ উপজেলায়। আর কৃষ্ণার বাবার বাড়ি ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পরিমল প্রতিদিনের মতো স্ত্রী কৃষ্ণা ও মেয়ে অর্পিতাকে নিয়ে সোমবার রাতে ঘুমিয়ে পড়েন। ভোরে পরিমল ঘুম ভেঙে দেখতে পান অর্পিতা মৃত অবস্থায় বিছানায় পড়ে আছে। এ সময় কৃষ্ণাকে তিনি বিছানায় দেখতে পাননি। পরে ঘরের বাইরে গিয়ে রান্নাঘরের আড়ার সঙ্গে কৃষ্ণার ঝুলন্ত লাশ দেখতে পান। পুরো বিষয়টি রহস্যজনক বলেও জানান স্থানীয়রা।

সুন্দরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইসরাইল হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে নিহতদের লাশ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য গাইবান্ধা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

তিনি আরো জানান, এ নিয়ে কৃষ্ণা রানীর পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা হলে পরিমলের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ ঘটনায় জেলা পুলিশ সুপার মো. আশরাফুল ইসলাম, সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) মো. রবিউল ইসলামসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। পুলিশ সুপার বলেন, ‘পুরো ব্যাপারটি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’






মন্তব্য চালু নেই