মেইন ম্যেনু

গার্ডিয়ানকে দেয়া সাক্ষাৎকারে যা বললেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ব্রিটেনের গার্ডিয়ান পত্রিকাকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এদেশে জঙ্গিবাদ দমনে ব্রিটিশ সরকারকে আরো বেশি পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

বাংলাদেশে ব্রিটিশ জিহাদিদের ইন্ধনে কিভাবে জঙ্গিবাদের বিস্তার ঘটছে, সেরকম একটি প্রতিবেদনের অংশ হিসেবে গার্ডিয়ান তার এই সাক্ষাৎকার নেয়।

শেখ হাসিনা বলেছেন, মৌলবাদীরা বাংলাদেশে তৎপরতা বাড়ানোর চেষ্টা করছে এবং কিছু কিছু লোক তাদের মদত দেয়ার চেষ্টা করছে।

শেখ হাসিনা এক্ষেত্রে জামায়াতে ইসলামীর প্রতি ইঙ্গিত করে বলেছেন, পূর্ব লন্ডনে এই দলটির প্রভাব রয়েছে সেখানে তারা অর্থ সংগ্রহ করে তারপর সেই অর্থ বাংলাদেশে পাঠায়।

সাক্ষাৎকারে শেখ হাসিনা বেশ স্পষ্টভাবেই বলেছেন, ব্রিটেন থেকে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে এই জঙ্গিবাদের হুমকি দমনে ব্রিটিশ সরকারকে আরো বেশি পদক্ষেপ নিতে হবে।

তবে গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে ব্রিটিশ জিহাদি বলতে যাদের কথা উল্লেখ করা হয়েছে, তার সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের কিছুটা তফাৎ আছে।

গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে কিভাবে সাম্প্রতিক সময়ে যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশিদের মধ্যে জঙ্গি মতাদর্শের বিস্তার ঘটেছে, প্রায় তিরিশ জন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত জিহাদি সিরিয়ায় লড়াই করতে গেছেন, কিভাবে এরা বাংলাদেশেও জঙ্গি নেটওয়ার্ক গড়ে তোলার চেষ্টা করছে, সেসব বিষয় উল্লেখ করা হয়।

কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এক্ষেত্রে বিশেষভাবে উল্লেখ করেছেন, পূর্ব লন্ডনে জামায়াতে ইসলামীর তৎপরতার প্রতি।

তবে গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য জামায়াতে ইসলামীকে মধ্যপন্থী ইসলামী রাজনৈতিক দল বলে বিবেচনা করে থাকে।

তিনি আরো বলেছেন, মৌলবাদীরা বাংলাদেশে তৎপরতা বাড়ানোর চেষ্টা করছে এবং কিছু কিছু লোক তাদের মদত দেয়ার চেষ্টা করছে, কিন্তু সরকার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রেখেছে। জঙ্গিবাদ দমনে শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক সহায়তা চেয়েছেন।
-বিবিসি বাংলা






মন্তব্য চালু নেই