মেইন ম্যেনু

গুগলের ইউরোপ প্রধান জানেন না তার বেতন কত!

মার্কিন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান গুগল এবং অ্যাপলের মত প্রতিষ্ঠান আয়কর ফাঁকি দেয়ার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে ইউরোপ, মধ্য প্রাচ্য এবং আফ্রিকার অনেক দেশে তাদের পণ্য উৎপাদন এবং অন্যান্য কর্মকাণ্ড চালায়। এসব প্রতিষ্ঠানে কর্মরত কার্যনির্বাহীদের বেতন আকাশচুম্বী হবে তাতে কোনো সন্দেহ নেই। কিন্তু গুগলের ইউরোপ শাখার প্রধান কার্যনির্বাহী ম্যাট ব্রিটিন বলেছেন, তিনি জানেন না গুগল তাকে ঠিক কত টাকা বেতন দেয়।

বৃহস্পতিবার ব্রিটিন একজন ব্রিটিশ আইন প্রণয়নকারী মেগ হিলারকে বলেন নিজের বেতনের পরিমাণের উপরে তিনি কোনো সংখ্যা প্রয়োগ করতে পারবেন না। গুগলের আয়কর দেয়া নিয়ে নিয়ে ব্রিটিশ কমটির একটি শুনানি চলাকালে তিনি এ কথা বলেন। তাদের ভেতরকার কথাবার্তাগুলো ছিল এই রকম:

হিলার : আপনি কি পরিমাণ বেতন পান মি. ব্রিটিন ?
ব্রিটিন : আমি হাসিমুখে সেটা বলে দিতাম, যদি এই শুনানির সাথে সেটা প্রাসঙ্গিক হতো।
হিলার : এটা প্রাসঙ্গিক। আমি যেহেতু জিজ্ঞাসা করছি সেহেতু এটা প্রাসঙ্গিক। আপনি কি বলবেন গুগল আপনাকে বেতন কত দেয়?
ব্রিটিন : বেতনের সংখ্যাটা আমার জানা নেই, থাকলে আমি এই মুহূর্তে বলে দিতাম।
হিলার : আপনি জানেন না আপনি কত বেতন পান? আমাদেরকে অন্তত একটা আনুমানিক ধারণা দিন। আপনার মূল বেতন কত?
ব্রিটিন : সংখ্যাটা আমার জানা নেই। তবে এটা যদি দরকারি হয় তাহলে আমি সেটা গোপনে জানাবো।

ইউরোপ, মধ্যপ্রাচ্য এবং আফ্রিকাতে গুগলের ব্যবসা এবং কর্মকাণ্ডের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন ব্রিটন। কোম্পানির বার্ষিক প্রতিবেদনে তার বেতন প্রকাশ করা হয়নি। যে কারণে এই শুনানির ব্যবস্থা করা হয়।

এছাড়াও এই শুনানিতে গুগলকে বলা হয়, গত ২০০৫ সাল থেকে জমা না দেয়া ১৮৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার আয়কর জমা দিতে। তবে যুক্তরাজ্যের অনেকেই এই শুনানির সিদ্ধান্তে রেগে গেছে। তাদের মতে গুগলের আরও অনেক বেশি আয়কর দেয়া উচিৎ।

উল্লেখ্য, ম্যাট ব্রিটিনের নাম এই প্রথম যুক্তরাজ্যের খবরে আসে নি। আগেও তিনি ব্রিটিশ সংসদে একটি সাক্ষ্য দেয়ার সময় একজন ব্রিটিশ আইনজীবী তাকে এবং গুগলকে অভিহিত করেছিলেন ‘অসৎ’ বলে।






মন্তব্য চালু নেই