মেইন ম্যেনু

গুলশানে জঙ্গি হামলায় নিহত রবিউলের স্ত্রী কন্যা সন্তান প্রসব করেছেন

টিপু সুলতান (রবিন), সাভার প্রতিনিধিঃ রাজধানীর গুলশানে জঙ্গী হামলায় নিহত ডিএমপির এসি রবিউল ইসলামের স্ত্রী উম্মে সালমা কন্যা সন্তান প্রসব করেছেন। রবিবার রাত বারটা আঠাশ মিনিটে সাভার এনাম মেডিকেল কলেজ এ্যান্ড হাসপাতালে সিজারের মাধ্যমে সন্তানের জন্ম দেন তিনি। সন্তান প্রসবের পর মা সুস্থ্য থাকলেও সামান্য শ্বাস কষ্টের কারণে শিশুকে রাখা হয়েছে নবযাতক নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে।

সদ্য ভুমিষ্ট এ সন্তানের কান্না হতে পারতো শুধুই আনন্দের। কিন্ত গুলশানের জঙ্গি হামলার ঘটনায় পাল্টে গেছে সব কিছু। জঙ্গী হামলার ঘটনায় নিহত ডিএমপির সহকারি কমিশনার রবিউল ইসলাম দেখে যেতে পারেননি তার নবজাতক সন্তানের মুখ। সন্তানও বঞ্চিত তার পিতৃ স্নেহ থেকে।

সোমবার সকালে সিজারের কথা থাকলেও উম্মে সালমার শারিরিক জটিলতা সৃষ্টি হওয়ায় রবিবার সন্ধ্যায়ই প্রস্তুতি নেয়া হয় অস্ত্রপচারের। সে অনুযায়ী স্থানীয় সাংসদ ডা: এনামুর রহমানের নির্দেশনায় ও সাভার মডেল থানার সহকারি পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমানের তত্ত্বাবধানে নেয়া হয় সব ব্যবস্থা।

সাংসদ ডা: এনামুর রহমান জানান, এসি রবিউল ইসলাম দেশের জন্য শহীদ হয়েছেন,আমরা সকলে মিলে তার স্ত্রীও সন্তানদের পাশে থাকবো।হাসপাতালের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহযোগীতার আশ্বাসও দেন তিনি।

এনাম মেডিকেল কলেজ এ্যান্ড হাসপাতালের অধ্যাপক কামরুন্নেসা, জানান রাত বারটা আঠাশ মিনিটে পৃথিবীর মুখ দেখে রবিউলের নবজাতক কন্যা সন্তান। মায়ের শারিরিক অবস্থা স্থিতিশীল থাকলেও নবজাতকের সামান্য শ্বাসকষ্ট থাকায় তাকে রাখা হয়েছে নবজাতক নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে।

রবিউলের মা করিমন্নেসা বেগম জানান, ছেলেকে হারিয়ে শোকে মূহ্যমান তিনি,তার চাওয়া বাবার আদর্শ আর সততাকে ধারন করে যেন বড় হতে পারে রবিউলের নবাগত সন্তানসহ বড় ছেলে সাজিদুল করিম।তিনি তার নাতনিকে পেয়ে খুশি,দোয়া চেয়েছেন দেশের সকলের কাছে।






মন্তব্য চালু নেই