মেইন ম্যেনু

গুড়ি গুড়ি বৃষ্টির মধ্যেও থেমে নেই পর্যটন প্রেমিরা

গুড়ি গুড়ি বৃষ্টির মধ্যেও পর্যটন প্রেমিরা থেমে নেই। ঈদের আনন্দকে বাড়িয়ে তুলতে ভিড় করছেন পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে। তেমনি মৌলভীবাজারের পর্যটন স্পটগুলোতে ঈদের আনন্দের ছোয়া লেগেছে। দর্শনার্থী ও পর্যটকদের আনাগোনায় মুখরিত হচ্ছে স্পটগুলো। মাধবকুন্ডে ও লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে পর্যটন সমাগম বেশিই ঘটছে এর মধে গ্রান্ড সুলতান হোটেল-রিসোর্স শুধু নয় এক নজরে দেখতে মুগ্ধমাতা পর্যটকরা ভিড় করছেন সেখানে।

শনিবার সকাল থেকে মৌলভীবাজার জেলার প্রায় সর্বত্র থেমে থেমে গুড়িগুড়ি বৃষ্টি হচ্ছে। এরই মধ্যে ভ্রমণপিপাসু লোকেরা ঈদের আনন্দকে আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধবের মধ্যে ভাগাভাগি করে নিতে বেরিয়ে পড়েছেন। লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান, হামহাম জলপ্রপাত, মাধবপুর লেক, মাধবকুন্ড জলপ্রপাত, গ্রান্ড সুলতান টি রিসোর্ট অ্যান্ড গল্ফ সেন্টার, একমাত্র পর্যটন জেলা মৌলভীবাজারের নানা চা বাগানগুলোতে পর্যটকদেও ঢল নামে।

মাধবকুন্ডে ঘুরতে আসা মনির রহমান অভিযোগ করে বলেন ঝর্ণার জলে সীমানা ভেড়া দেয়ায় তারা সাতাঁর কাটতে পারছেন না এতে তাদের আনন্দ পূর্নতা পাচ্ছেনা।

তবে কর্তপক্ষ জানায় এখানে প্রতি বছর সাতাঁর কাটতে গিয়ে অনেক পর্যটক মারা যায় তাই তারা এই এলাকাকে ঝুকিপূর্ণ আখ্যায়িত করে পর্যটকদের নিরাপত্তায় এই সীমানা ভেড়া দেয়া হয়েছে।

লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের বন কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম জানান, ঈদের এই মৌসুমে তাদের আয় দ্বিগুণ হতে পারে। পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকায় পর্যটকরা এখানে ভিড় করছেন বেশি।






মন্তব্য চালু নেই