মেইন ম্যেনু

গৃহকর্তাকে পরিচারিকার অভিনব শাস্তি (ভিডিও)

বাড়ির কাজের সুবিধার জন্য অনেকেই কাজের মানুষ রাখেন। নানা কারণে হয়তো তাদের মধ্যে মনোমালিন্যও হয়। এই ঘটনা অনেক সময় বড় আকারও ধারণ করে। আমরা সাধারণত দেখি মালিক এসব ক্ষেত্রে বাড়তি সুবিধা নেন। গৃহ পরিচারিকা বাধ্য হয় অন্যায় আচরণ মেনে নিতে। কিন্তু সব গৃহপরিচারিকা কিন্তু এমন নয়। আর যদি তাই হয়, তাহলে এর ফল যে কতটা ভয়াভহ হতে পারে আপনি কী কখনও ভেবেছেন? সম্প্রতি কুয়েতে ঘটে যাওয়া একটি ঘটনা থেকে আপনি সহজেই সেটি আন্দাজ করতে পারবেন।

বাড়ির মালিকের খুব ইচ্ছে হচ্ছিল জুস খাবেন। কাজের মেয়েকে ডেকে তিনি সে কথা জানান। হুকুম পেয়ে মেয়েটি রান্না ঘরে গিয়ে জুস বানাতে শুরু করে। কিন্তু রান্না ঘরে থাকা অন্য এক কাজের মেয়ে ইচ্ছে করেই মালিককে জব্দ করার জন্য ঘটালো অন্য রকম এক ঘটনা; যা আপনার বিশ্বাস হতে চাইবে না।

স্থানীয় একটি সংবাদমাধ্যম তাদের প্রতিবেদনে লিখেছে, অনেক দিন থেকেই ওই নারী পরিচারিকার প্রতি বাড়ির কর্তাদের নানা কারণে সন্দেহ হচ্ছিল। তারা রান্না ঘরে গোপন ক্যামেরা সেট করে। এর মাধ্যমে কাজের মেয়েরা ঠিকমতো কাজ করছে কিনা তা পর্যবেক্ষণ করতো তারা।

097

সম্প্রতি তাদের ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজ থেকে একটি ঘটনা দেখতে পান তারা। দৃশ্যটি দেখে চোখ কপালে ওঠে তাদের। ক্যামেরায় দেখা যায়, যিনি জুস বানাচ্ছিলেন তিনি যখন রান্না ঘরের বাইরে যান তখন সেখানে থাকা অন্য এক কাজের মেয়ে একটি গ্লাসে তরল পদার্থ জুসে মিশিয়ে দিচ্ছেন। ভিডিও দেখে সহজেই আন্দাজ করা যায় সেটি ছিল ইউরিন।

গৃহকর্তার প্রতি প্রতিশোধ নিতেই যে মেযেটি এ কাজ করেছে এতে কোনো সন্দেহ নেই। কিন্তু জুসে ইউরিন মেশানোর শাস্তিস্বরূপ বাড়ির কর্তা সেই পরিচারিকার বিরুদ্ধে শেষ পর্যন্ত কী ব্যবস্থা নিয়েছে তা জানা যায়নি। তবে তার কপালে ভালো কিছু যে ঘটেনি তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।






মন্তব্য চালু নেই