মেইন ম্যেনু

গোল নিয়ে চিন্তিত নন রোনালদো

আর মাত্র কয়েকঘণ্টা পরই সুইডিশ ক্লাব মালমোর মাঠে খেলতে নামবে রিয়াল মাদ্রিদ। সুইডিশদের মুখোমুখি হওয়ার আগে রিয়ালের সবচেয়ে বড় দুঃশ্চিন্তার বিষয়, দলটির তারকা ফুটবলার রোনালদোর গোল না পাওয়া। মৌসুম শুরু হওয়ার আগে থেকেই, প্রাক মৌসুম ম্যাচগুলো থেকে শুরু করে মৌসুম শুরু হওয়ার পরও টানা আট ম্যাচ গোল বঞ্চিত ছিলেন তিনি। এরপর হঠাৎ করেই যেন গোলবন্যা শুরু হয়েছিল তা পা থেকে। দুই ম্যাচে করলেন ৮ গোল। এরপর আবারও হারিয়ে গেলেন।

অথ্যাৎ মৌসুম শুরু হওয়ার পর এখনও পর্যন্ত ৮ গোল করেছে রোনালদো। যার সবগুলোই এসেছে মাত্র দুটি ম্যাচ থেকে- এস্পানিওল এবং শাখতার দোনেৎস্কের বিপক্ষে। ওই দুই ম্যাচের পর আবারও টানা ফ্লপ সিআর সেভেন। এই যখন অবস্থা, এবং রোনালদোর গোল না পাওয়া নিয়ে যখন চলছে সমালোচনার ঝড়, তখন তার পক্ষ হয়ে কথা বললেন কোচ রাফায়েল বেনিতেজ। তিনি বললেন, ‘গোল না পাওয়ার কারণে তো রোনালদো চিন্তিত নয়। তাহলে এত কথা-বার্তা কেন?’

রোনালদো সবচেয়ে বেশি সমালোচনার তীরে বিদ্ধ হচ্ছেন মালাগার বিপক্ষে সর্বশেষ নিজেদের মাঠে গোল করতে ব্যর্থ হওয়ায়। যার ফলে রিয়াল মাদ্রিদকে গোলশূন্য ড্র করতে হয়েছে ওই ম্যাচে। তবে গোল করতে না পারলেও সর্বশেষ ৬ ম্যাচে রোনালদোর গোলের প্রচেষ্টাই ছিল সববচেয়ে বেশি। মোট ৪১টি বার গোলে শট নিয়েছিলেন তিনি। দ্বিতীয় স্থানে থাকা লিওনেল মেসি শট নিয়েছিলেন ২৪টি।

তবে কোচ রাফায়েল বেনিতেজ মনে করেন, অচিরেই গোলে ফিরবেন তাদের সেরা তারকা। তিনি বলেন, ‘রোনালদো কি গোল নিয়ে চিন্তিত? আমি বলবো, না। তিনি চিন্তিত নন। ‍পুরো দলও এ নিয়ে কোন প্রকার চিন্তার মধ্যে নেই। শনিবার (মালাগার বিপক্ষে) আমরা অনেকগুলো সুযোগ তৈরী করেছিলাম। একই সঙ্গে কোন গোলও হজম করিনি। তবে এটা ঠিক, আমাদের নিঁখুতত্ব আরও বেশি বাড়াতে হবে।’

দলের খেলোয়াড়দের গোলের প্রতি স্পৃহা দেখে বেনিতেজ বলেন, ‘আমি তো দেখেছি রোনালদো এবং দলের বাকি সবাইকে গোলের জন্য কেমন হাঁস-ফাঁস করতে। যদি দল সুযোগ তৈরী করে, তাহলে ক্রিশ্চিয়ানো গোলের সেই সুযোগগুলো কাজে লাগায়। আমি নিশ্চিত, খুব দ্রুতই সে গোল পাবে এবং এ ব্যাপারে সে আমাকে নিশ্চয়তাও দিয়েছে। তার আত্মবিশ্বাস দেখেও আমার মনে হয়েছে, কথা আর কাজে নিখুঁত হবে সে।’






মন্তব্য চালু নেই