মেইন ম্যেনু

ঘরেই জন্মাবে ঔষধি গাছ!

অনেক অনেক কাল আগে থেকেই নিজেদের ছোটখাটো পরিসরে নানারকম ঔষধি গাছের চাষ করতেন চিকিৎসকেরা। আবিষ্কার করতেন চিরচেনা সব গাছের নানান চমত্কার ক্ষমতা। বর্তমানে ঔষধি গাছ নিয়ে কাজ করার সেই ঘরোয়া পরিবেশটা আর নেই। তবু কে না চায় এই ব্যস্ততম আর জঞ্জালে ভরা শহরে নিজের বাড়িতেই কিছু ঔষধি গাছের চাষ করতে, নিজেকে আর নিজের পরিবারকে সুস্থ রাখতে? যদি আপনিও তাই চান তাহলে আপনার জন্যেই দেওয়া হল ঘরেই চাষযোগ্য কিছু চমৎকার ও কার্যকরী ঔষধির।

১. সেজ বা ঋষি উদ্ভিদ

উৎপত্তিগতভাবেই সেজ উদ্ভিদের নাম এসেছে স্যালভিয়া নামক শব্দ থেকে। যার বাংলা করলে হয়- আরোগ্যের জন্যে। নিজের পরিবারের সুস্থতা আর আরোগ্যকে কামনা করতে তাই আপনি চাইতেই পারেন এই উদ্ভিদটিকে নিজের বাড়িতে চাষ করতে। ছোটখাটো উদ্ভিদটি খুব বেশি জায়গা নেয়না। সেইসাথে প্রাচীনকাল থেকে চিকিৎসাকাজে ব্যবহৃত সেজ নিমিষে সারিয়ে দিতে পারে মুখ ও জীহ্বার নানারকম প্রদাহকেও।

২. ক্যামোমিল

ডেইজীসদৃশ ফুলের অধিকারী এই উদ্ভিদটি চাষ করলে কেবল এর ঔষধি উপকারই নয়, সেই সাথে আপনি পাবেন ফুলের মন মাতানো সৌন্দর্যও। হজমে সমস্যা? ত্বকে কোন সংক্রমণ হয়েছে? ক্যামোমিল সহজেই সমাধান করে দিতে পারে এসব ছোটখাটো সমস্যা। এছাড়াও সাধারন অস্বস্তিবোধকেও দূর করতে সাহায্য করে এটি।

৩. পুদিনা

পুদিনাকে চেনেনা এমন খুব কম মানুষই আছে আমাদের দেশে। নিত্যনৈমিত্তিক নানা খাবার তৈরি করতে পুদিনাকে ব্যবহার করি আমরা সবাই। তবে বাসায় এই পুদিনা পাতা চাষ করলে কেবল খাবারকে আকর্ষণীয় করতেই নয়, নানারকম কাটা-ছেঁড়ার ক্ষেত্রে এবং হারিয়ে যাওয়া ক্ষুধাকে ধরে আনতেও সাহায্য করবে এটি।

৪. ফিভারফিউ

গাছের নাম শুনেই নিশ্চয় বুঝে গিয়েছেন জ্বর কিংবা জ্বরসংক্রান্ত কোন কিছুর সাথে বেশ ভালো একটা যোগাযোগ রয়েছে ফিভারফিউয়ের? আর সত্যিই একেবারে তাই। মাথায় প্রচন্ড ব্যথা? দেরি না করে খানিকটা ফিভারফিউয়ের পাতা ছিঁড়ে চিবিয়ে নিন। কিংবা সেটাকে চায়ের সাথে মিশিয়ে পান করুন। ব্যস! দেখবেন জাদুর মতন ব্যথা হারিয়ে গিয়েছে অন্য কোথাও। এছাড়াও চিকিৎসকেরা ফিভারফিউকে ত্বকের নানা সমস্যা ও আরথ্রাইটিসের ঔষধি হিসেবে ব্যবহার করেন।

৫. লেমন বাম

বহুবর্ষজীবী এই উদ্ভিদটি অনেকটা মিন্টের কাছাকাছি। তবে অনেক অনেক বছর ধরেই একে চিকিৎসাকাজে ব্যবহার করে আসছে মানুষ। অস্থিরতা, অনিদ্রা, ক্ষত কিংবা পোকার কামড়ের প্রতিষেধক হিসেবে কাজ করে এটি। সেইসাথে হুটহাট পেটের সমস্যাতেও বেশ সাহায্য করে লেমন বাম।






মন্তব্য চালু নেই