মেইন ম্যেনু

ঘরের মাঠে চট্টগ্রামের বড় হার

বিপিএলে ঢাকায় প্রথম পর্বে চারটি ম্যাচ খেলে মাত্র একটিতে জিতেছিলো চিটাগাং ভাইকিংস। তারা ভেবেছিলো চট্টগ্রামে দ্বিতীয় পর্বে জয় দিয়ে শুরু করবে। কিন্তু সেটি আর হলো না।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সোমবার দিনের প্রথম ম্যাচে বরিশাল বুলসের বিপক্ষে তামিম ইকবালের দল হারলো ৩৩ রানে। মাহমুদল্লাহ রিয়াদদের দেয়া ১৭১ রানের জয়ের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে তারা ১৯.৫ ওভারে সব উইকেট হারিয়ে ১৩৭ রান করতে সক্ষম হয়েছে তারা।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩৮ রান করেছেন নাইম ইসলাম। আর বরিশাল বুলসের পক্ষে কেভিন কুপার ৩টি, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ১টি, আল-আমিন হোসেন ২টি, তাইজুল ইসলাম ১টি ও মোহাম্মদ সামি ১টি করে উইকেট নেন।

ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে ওপেনার তামিম ইকবালকে (৬) সাজঘরে ফেরান আল-আমিন হোসেন। আর তৃতীয় ওভারের প্রথম বলে রান আউট হয়ে ফিরে যান কামরান আকমল (০)।

পঞ্চম ওভারে তাইজুল ইসলামের বলে মোহাম্মদ সামির হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিলকারত্নে দিলশান (১৯)। ষষ্ঠ ওভারে আল-আমিনের বলে নাদিফ চৌধুরীর হাতে ধরা পড়েন এনামুল হক বিজয় (১২)। দশম ওভারে এলটন ‍চিগুম্বুরা (৫) উইকেটরক্ষকের হাতে ধরা পড়েন।

১৪তম ওভারে জিয়াউর রহমানকে (১৩) ফেরান মোহাম্মদ সামি। ১৯তম ওভারে আমিরকে বোল্ড করেন কেভিন কুপার (২০)। একই ওভারে নাইম ইসলামকেও বোল্ড করেন তিনি। শেষ ওভারে শফিউল রান আউট হন। আর এনামুল হক জুনিয়রকে বোল্ড করেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৭১ রান সংগ্রহ করে বরিশাল বুলস। দলের পক্ষে অর্ধশত করেন অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ (৫১)।

এছাড়া মেহেদী মারুফ ৩৮, সেকুগে প্রসন্ন ৩৬ ও কেভিন কুপার ২১* রান করেন। চিটাগাং ভাইকিংসের পক্ষে মোহাম্মদ আমির ২টি, জিয়াউর রহমান ২টি, এলটন চিগুম্বুরা ১টি, শফিউল ইসলাম ১টি ও তিলকারত্নে দিলশান ১টি করে উইকেট নেন। ম্যাচ সেরা হন বরিশাল বুলসের কেভিন কুপার। চার ম্যাচ খেলে বরিশাল বুলসের এটি তৃতীয় জয়। আর পাঁচ ম্যাচ খেলে চট্টগ্রামের এটি চতুর্থ হার।






মন্তব্য চালু নেই