মেইন ম্যেনু

ঘাটাইল পৌরসভার বেহাল দশা,পৌরবাসী নাগরিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত

টাঙ্গালের ঘাটাইল পৌরসভা নানা সমস্যায় জর্জরিত হয়ে পড়েছে, ফলে বিভিন্ন নাগরিগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে পৌরবাসী। পৌরসভার নেই কোন মাষ্টার পে¬ন সীমানা বাড়লেও বাড়েনি সেবারমান। সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বৃদ্ধি পাচ্ছে পৌরসভার হোল্ডিং ট্যাক্স লাইসেন্স ফির মতো সবকিছু। গত ছয় মাসে পৌরকর দ্বিগুণ বেড়েছে। এর বিপরীতে পৌরবাসী পেয়েছে অপরিকল্পিত আবাসন ব্যবস্থা।

তথ্যসূত্রে জানা যায়, ঘাটাইল পৌরসভা আয়তনে ১৫ বর্গ কিলোমিটার। যা একটা পৌরসভার জন্য আয়তনে খুবই অপ্রতুল। ২০০১ সালে ৩য় শ্রেণী পৌরসভা প্রতিষ্ঠিত হলেও প্রশাসনিক ভবন ছাড়া আর কিছুই গড়ে উঠেনি। এখানে পানি ও পয়ঃনিষ্কাশনের জন্য ড্রেনেজ ব্যবস্থা একটু বৃষ্টি হলেই রাস্তার দু-ধারে পানি জমে থাকে, ফলে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ে।

পৌর এলাকার বেশির ভাগ রাস্তাঘাট গুলো খানা খন্দে ভরপুর। রাস্তায় কোন বৈদ্যুতিক বাতি নেই। দোকান পাট বন্ধ হলে শহরের সমস্ত অংশ অন্ধকার হয়ে যায়। রাস্তার দু পাশে ছোট খাট দোকানপাট সহ নির্মাণ সামগ্রী রেখে পথাচারীদের চলাচল অসুবিধা হচ্ছে। দীর্ঘদিন ধরে টাঙ্গাইলের ঘাটাইল পৌরসভার নাগরিক সমাজ পথচারীদের চলাচলের রাস্তা থেকে দোকানপাট সরানোর দাবী নিয়ে ঘাটাইল উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে অভিযোগ করেও কোন প্রতিকার হয়নি বলে জানা গেছে।

এছাড়া সামান্য বৃষ্টিতে তলিয়ে যায় পৌরসভার অনেক এলাকা। অভিযোগ রযেছে ড্রেনেজ ব্যবস্থান না রেখেই এবং কোন প্রকার নকশা ছাড়াই অধিকাংশ দোকান মার্কেট, বাড়িঘর ইচ্ছামতো তৈরী হয়েছে। দুএকটি ড্রেনেজ যা রয়েছে সেগুলো পরিকল্পিত ভাবে তৈয়ার করা হয় নাই। ময়লা ফেলার জায়গা নেই। শহরের অধিকাংশ ময়লা ফেলা হয় এলোপাথারী ভাবে রাস্তার পারে।
পরিকল্পিতভাবে কাচা বাজার গড়ে উঠেনি। গবাদি পশু জবাই করার জায়গা থাকলেও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে জবাই করায় কোন তদারকি নেই। চারী পাশ থেকে আসা টেম্পো, রিক্সা, অটোরিক্সা, সিএনজি, নসিমন, করিমনের পাকিং এর নিদৃষ্ট জায়গা না থাকায় ইচ্ছামাফিক রাস্তার উপর পার্কিং করার কারণে ষ্টেশন হতে বাজারের শেষ পর্যন্ত সব সময় যানজট লেগেই থাকে। শহরের ব্যস্ততম জায়গা কলেজ মোড়ে এবং বাজার রোডে ফুটপাতে অবৈধ দোকান গড়ে উঠায় যানজট আরো তীব্র আকার ধারন করে।
সবকিছু মিলে চরম ভোগান্তির নাম ঘাটাইল পৌরসভার নূন্যতম তদারকি নেই। পৌরসভা নিরব দর্শকের ভূমিকা পালন করার কারণে কলেজ মোড়ে (চৌরাস্তা) প্রতিনিয়ত গাড়ী দুর্ঘটনায় অনেক লোকের প্রাণ দিতে হয়েছে। অতি সম্প্রতি ঘাটাইল পৌরসভার তরফ থেকে রাস্তার দু’ধারে নির্মাণ সামগ্রী ও ছোট খাট দোকানপাট উচ্ছেদ করার জন্য ৪৮ ঘণ্টা সময় সীমা বেধে দিয়ে আল্টিমেটাম দিলেও মেয়রের নির্দেশ অকার্যকর রয়েছে। তাই রাস্তার দু’ পাশে সকল দোকান পাট উচ্ছেদ করে পথচারীদের অবাদে চলাচলে সুযোগে দাবী করেছে পৌরবাসী।






মন্তব্য চালু নেই