মেইন ম্যেনু

ঘূর্ণিঝড়ের আশঙ্কায় চট্টগ্রামে অর্ধলক্ষ মানুষ নিরাপদ আশ্রয়ে

ঘূর্ণিঝড় কোমেনের তাণ্ডব থেকে রক্ষা করতে চট্টগ্রামের উপকূলীয় চার উপজেলার অর্ধলক্ষ মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

বুধবার রাত ১১টা থেকে বৃহস্পতিবার সকালের মধ্যে এসব মানুষকে বিভিন্ন আশ্রয়কেন্দ্র এবং স্কুল-কলেজে নিরাপদ আশ্রয়ে রাখা হয়েছে।

এ দিকে ঘূর্ণিঝড়ের আশঙ্কায় চট্টগ্রামের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। দুর্যোগ মোকাবিলায় সর্বোচ্চ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন। চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ আবদুল্লাহ এক জরুরি বার্তায় চট্টগ্রামের উপকূলী এলাকার সব মানুষকে পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যেতে অনুরোধ করেছেন।

চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন সকালে জানান, ঘূর্ণিঝড় কোমেনের তাণ্ডবের শঙ্কায় চট্টগ্রামের উপকূলীয় এলাকা সন্দ্বীপ, সীতাকুণ্ড, আনোয়ারা, বাঁশখালী এবং চট্টগ্রাম মহানগরীর পতেঙ্গা এলাকার প্রায় অর্ধলক্ষ মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

এদিকে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে চট্টগ্রামে হালকা বৃষ্টিপাতের সঙ্গে ধমকা হাওয়া বইতে শুরু করেছে। দুপুরের মধ্যে ঘূর্ণিঝড়টি চট্টগ্রাম অতিক্রম করে তাণ্ডব চালাতে পারে এই আশঙ্কায় সাধারণ মানুষ চরম আতঙ্কিত অবস্থায় সময় অতিবাহিত করছে।

চট্টগ্রামে সকাল থেকে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। চট্টগ্রাম মহানগরীর অধিকাংশ দোকানপাট ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। দুর্যোগ মোকাবিলায় জরুরি সভা আহ্বান করেছেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক সকাল ১০টায় চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে এই সভা অনুষ্ঠিত হওয়া কথা রয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই