মেইন ম্যেনু

‘ঘড়িবালক’ আহমেদ : হোয়াইট হাউস থেকে কাতার

যুক্তরাষ্ট্রের সেই কিশোর, ঘড়ি বানিয়ে যাকে গ্রেফতার হতে হয়েছিল, সে এখন বিশ্বজুড়ে সমাদর পাচ্ছে। নবম শ্রেণিতে পড়া আহমদে মোহাম্মদ নিজে ঘড়ি বানিয়ে শিক্ষকদের বিস্মিত করতে চেয়েছিল। কিন্তু ভুল বুঝে স্কুলকর্তৃপক্ষ তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস রাজ্যের ১৪ বছর বয়সি আহমেদের বানানো ঘড়িকে বোমা ভাবা হয়েছিল। এর অন্যতম কারণ সে মুসলমান। পরে জানা যায় সত্যিটা, সেটি আসলেই একটি ঘড়ি ছিল, বোমা নয়।

বিজ্ঞানমনস্ক আহমেদকে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা আমন্ত্রণ করেন। সোমবার রাতে ওবামার সঙ্গে দেখা করে সে। আহমেদকে বুকে জড়িয়ে আদর করেন ওবামা। ওবামার আশীর্বাদ পাওয়ার মাত্র একদিনের মাথায় আহমেদের পরিবার ঘোষণা দিল, কাতারে যাচ্ছে সে।

index

আহমেদকে বুকে জড়িয়ে ধরেন ওবামা

কাতার ফাউন্ডেশন তাদের ‘যুব উদ্ভাবক কর্মসূচি’-তে পড়াশোনার জন্য আহ্বান জানিয়েছে আহমেদকে। মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক বিনা খরচে পড়ার সুযোগ পাচ্ছে সে। তার সম্পূর্ণ দায়দায়িত্ব ফাউন্ডেশনের। কাতার ফাউন্ডেশনের প্রস্তাব গ্রহণ করেছে আহমেদ। যুক্তরাষ্ট্র ছেড়ে আহমেদ যাচ্ছে কাতারে, সঙ্গে তার পরিবারও।

সেপ্টেম্বর মাসে গ্রেফতার হওয়ার পর আহমেদ বিশ্বজুড়ে আলোচনায় আসে। বিভিন্ন দেশ থেকে সফরের আমন্ত্রণ পায় সে। চলতি মাসের গোড়ার দিকে কাতারসহ মধ্যপ্রাচ্য সফর করে আহমেদ। এ সময় সুদানের প্রেসিডেন্ট ওমর আল বশিরের সঙ্গে দেখা করে আহমেদ।






মন্তব্য চালু নেই