মেইন ম্যেনু

চট্টগ্রামে উন্মুক্ত স্থানে থার্টি ফার্স্ট নাইট উদযাপনে নিষেধাজ্ঞা

চট্টগ্রামে সমুদ্র সৈকতসহ বন্দরনগরীর যেকোনো উন্মুক্ত স্থানে থার্টি ফার্স্ট নাইট উদযাপনের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশ (সিএমপি)।

থার্টি ফার্স্ট নাইট উপলক্ষে হোটেল কিংবা আবাসিক ভবনের ছাড়া কোথাও উৎসব উদযাপন করা যাবে না বলে জানানো হয়েছে।

মঙ্গলবার এ মর্মে সাতটি বিশেষ নির্দেশনা জারি করেছে সিএমপি। চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের জনসংযোগ বিভাগ থেকে পাঠানো সাতটি নির্দেশনার মধ্যে রয়েছে-

১) ইংরেজি নববর্ষের প্রাক্কালে ৩১ ডিসেম্বর রাত ৮টা থেকে ১ জানুয়ারি, ২০১৬ ভোর ৫টা পর্যন্ত চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন আবাসিক হোটেল, রেস্তোরাঁ, জনসমাবেশ ও উৎসবস্থলে সকল প্রকার লাইসেন্সকৃত আগ্নেয়াস্ত্র বহন না করার জন্য সংশ্লিষ্ট সম্মানিত নগরবাসীর প্রতি বিশেষভাবে অনুরোধ করা গেল।

২) ৩১ ডিসেম্বর রাত ৮টা থেকে ১ জানুয়ারি, ২০১৬ ভোর ৫টা পর্যন্ত মহানগর এলাকায় কোনো প্রকার আতশবাজি, পটকা ফোটানো যাবে না।

৩) ৩১ ডিসেম্বর বিকেল ৫টা থেকে পতেঙ্গা ও পারকি সমুদ্র সৈকতে অবস্থান না করার জন্য বা না যাওয়ার অনুরোধ করা হল।

৪) ফয়’স লেক, ডিসি হিল, আগ্রাবাদ শিশুপার্ক, কাজীর দেউরী শিশুপার্কসহ বিভিন্ন বিনোদনমূলক স্থানে এই উপলক্ষে অনুষ্ঠিতব্য সকল অনুষ্ঠান সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে সমাপ্ত করার জন্য অনুরোধ করা হলো।

৫) হোটেল, মোটেল, ক্লাবগুলোর বাইরে কোনো প্রকার মাতলামি বরদাস্ত করা হবে না।

৬) অনুমতি ব্যতীত খোলা মাঠে বা রাস্তায় থার্টি ফার্স্ট নাইট উদযাপনের কোনো অনুষ্ঠান করা যাবে না।

৭) সন্ধ্যা ৭টার পর বিমানযাত্রী ব্যতীত কোনো গাড়ি পতেঙ্গা/বিমানবন্দর সড়কে চলাচল করবে না।

জনস্বার্থে এবং নগরীর আইন-শৃংখলা রক্ষার স্বার্থে এসব নির্দেশনা মেনে চলতে নগরবাসীর প্রতি অনুরোধ জানিয়েছে সিএমপি।






মন্তব্য চালু নেই