মেইন ম্যেনু

চট্টগ্রামে বিএনপি’র শোডাউন

৩৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বৃহস্পতিবার শোডাইন করলো চট্টগ্রাম বিএনপি। মহানগর বিএনপির নতুন কমিটির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্করের নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা বৃহস্পতিবার বিকালে রীতিমতো মাঠ গরম করে রাখে।দীর্ঘ দিন পর বিএনপি যেন প্রাণমুখে মিছিল-সমাবেশ করলো চট্টগ্রামের মাটিতে।

এসময় তারা শ্লোগানে শ্লোগানে মুখর করে তুলে বন্দর নগরীটি।নগরীর কাজীর দেউরি এলাকায় বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় মিছিল শেষে সমাবেশ করে চট্টগ্রাম মহানগর কমিটি। নগরীর বিভিন্ন থানা-ওয়ার্ড থেকে ফেস্টুন,ব্যানারে সজ্জিত মিছিল নিয়ে কাজীর দেউরি মোড়ে নগর বিএনপির বিভিন্ন স্তরের নেতা-কর্মীরা মিলিত হন।

পরে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে সমাবেশ শেষে শোভাযাত্রা নিয়ে নগরীর নুর আহমদ সড়ক দিয়ে এগিয়ে যায় নেতাকর্মীরা। কিন্তু দলীয় কার্যালয় নসিমন ভবনের সামনে আগে থেকে দাঁড়িয়ে থাকা পুলিশের ব্যারিকেড দেখে শোভাযাত্রা নিয়ে আর এগোয়নি নেতাকর্মীরা। শেষে নসিমন ভবনের সামেনই থামে মিছিল। সেখানে ডা. শাহাদাতের সংক্ষিপ্ত বক্তব্যের পর কর্মসূচির সমাপ্তি ঘটান তারা।

কাজীর দেউরি এলাকার সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির নতুন কমিটির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, “স্বৈরাচারী সরকার বিএনপিকে ধ্বংস করার জন্য নানা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। সম্প্রতি তারা বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের খেতাব প্রত্যাহারের উদ্যোগ নিয়েছে।”

তিনি বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের খেতাব কেড়ে নিয়ে সরকার তাদের অপমান করতে চাইছে।

তিনি আরো বলেন, স্বৈরাচারী সরকার এখন বিভিন্ন প্রজেক্ট নিয়ে ব্যস্ত আছেন। কখনো মুক্তিযুদ্ধ কখনো গণজাগরন মঞ্চ। তাদের নাটক বাংলার জনগন বুঝে গেছে। সরকারের এরকম সিদ্ধান্ত জনগণ আন্দোলনের মাধ্যমে প্রতিহত করবে।

সমাবেশে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাধারণ স¤পাদক আবুল হাশেম বক্কর, নগর বিএনপির সাংগঠনিক স¤পাদকসহ যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, মহিলা দল ও বিএনপির বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির নতুন কমিটির ঘোষণার পর নেতাকর্মীদের নানা প্রতিক্রিয়ার কারণে কোনরকম সভা-সমাবেশ নিয়ে মাঠে নামেনি শীর্ষ এই নেতারা।






মন্তব্য চালু নেই