মেইন ম্যেনু

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন উপাচার্য হয়েছেন অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী

বাংলাদেশের উচ্চশিক্ষার বৃহত্তম বিদ্যাপীঠ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন উপাচার্য হয়েছেন বর্তমান উপ-উপাচার্য ও সমাজতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী। মঙ্গলবার ১৯৭৩ সালের বিশ্ববিদ্যালয় আইনের ১২ (২) ধারায় রাষ্ট্রপতি ও বিশ্ববিদ্যালয় চ্যান্সেলর তাকে নিয়োগ দিয়েছেন বলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপ সচিব (বিশ্ববিদ্যালয়-২) লায়লা আরজুমান্দ বানু স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ড.ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরীকে উপ-উপাচার্যের পদ থেকে অব্যাহতি দিয়ে পাঁচটি শর্তে আগামী ১৫ জুন থেকে উপাচার্য পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

তার বর্ণাঢ্য শিক্ষাজীবনে ১৯৮১ সালে চবি সমাজতত্ত্ব বিভাগ থেকে স্নাতকোত্তর শেষ করেন ইফতেখার। ১৯৮২ সালে এ বিভাগেই প্রভাষক হিসেবে যোগদান করেন তিনি।পরবরতীকালে ১৯৮৮ সালে জাপানের সুকুরা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন। ১৯৯৬ সালে অধ্যাপক হিসেবে পদোন্নতি পান নতুন এ উপাচার্য।

কর্মক্ষেত্রে সফল এ শিক্ষাবিদ ২০১৩ সালের ৩০ মে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্যের দায়িত্ব গ্রহণ করেন।বিদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিজিটিং অধ্যাপক হিসেবে দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি সমাজতত্ত্ব বিভাগের সভাপতি, চবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি, বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক ফেডারেশনের মহাসচিব এবং চট্টগ্রামের বেসরকারি প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য ও সমাজবিজ্ঞান অনুষধের ডিন হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন অধ্যাপক ইফতেখার উদ্দিন।

​ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী বিবৃতিতে বলেন, ‘আমাকে এ দায়িত্ব প্রদান করায় জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমান কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ সংশ্লিষ্ট সকলের কাছে কৃতজ্ঞ। সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনার জন্য আমি সকলের সহযোগিতা কামনা করছি।’

নবনির্বাচিত ভিসি ড.ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরীকে অভিনন্দন জানিয়ে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আলমগীর টিপু বলেন, “ছাত্রনেতা হিসেবে নয় একজন সাধারণ শিক্ষার্থী হিসেবে আমার আশা, ভিসি স্যার বিশ্ববিদ্যালয়ের সেশনজট নিরসন ও পরিবহন সমস্যা সমাধানে কার্যকরী ভূমিকা পালনের পাশাপাশি সাম্প্রদায়িকতা ও জঙ্গীবাদমুক্ত ক্যাম্পাস উপহার দিবেন।”






মন্তব্য চালু নেই