মেইন ম্যেনু

চলন্ত বিমানে পর্নস্টারকে নিয়ে পাইলটের একি কাণ্ড!

নিজেকে ‘নটি পাইলট বা দুষ্টু বিমানচালক’ আখ্যাকারী কুয়েত এয়ারওয়েজের এক বিমান চালক তার বিমানের ককপিটে (চালক কক্ষে) এক সাবেক পর্নস্টারকে ডেকে নিয়ে গেছেন বিমানের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে খেলা করার জন্য। এমনকি চোল মাফিয়া নামের ওই গ্ল্যামার কন্যার জন্য ককপিটে বসেই ফরাসি মদ- শ্যাম্পেনের অর্ডার করেছেন ওই পাইলট! নিজের হাঁটুতে ওই মডেল কন্যাকে বসিয়ে ৪০টি সিগারেটও পান করিয়েছেন ওই ‘দুষ্টু পাইলট’।

লন্ডনের হিথ্রো বিমান বন্দর থেকে আটলান্টিক মহাসাগর পাড়ি দিয়ে নিউইয়র্কের জন এফ কেনেডি বিমান বন্দরে যাচ্ছিল বিমানটি। আর সেসময়েই এই কাণ্ড ঘটান ওই বিমান চালক। মিস মাফিয়ার আসল নাম হল- চোল খান। চোল খান জানান, ককপিটে বসে তারা ছবি তোলেন ও ভিডিও করেন। এমনকি কুয়েতি বংশোদ্ভুত ওই পাইলট তাকে নগ্নবক্ষা অবস্থায়ও দেখতে চান। এসময় ওই পাইলট তার বিমানের অর্ধেক পরিচারিকার সঙ্গে বিছানায় যাওয়ার কথা উল্লেখ করে গর্বও করছিলেন বলে জানান সাবেক পর্নস্টার চোল খান।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার সাবেক বাসিন্দা মিস খান জানান, ‘তিনি ওই পাইলটের আচরণে খুবই মর্মাহত হয়েছেন। কারণ ৩০০ যাত্রীকে নিয়ে আকাশে উড়াল দিয়ে ৩৩ হাজার ফুট উপরে উঠে সে আচরণ করেছে তা একদমই গ্রহণযোগ্য নয়।’ চলন্ত বিমানে পর্নস্টারকে নিয়ে পাইলটের একী কাণ্ড! ব্রিটেনের দ্য ডেইলি স্টারকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সাবেক প্লে বয় মডেল মিস খান বলেন, ‘সিটবেল্টের সিগনাল অফ হয়ে যাওয়ার পরপরই তাকে এবং তার এক গ্ল্যামারাস বান্ধবীসহ বিমান পরিচারিকাকে দিয়ে ককপিটে ডেকে নেন ওই পাইলট।’

২৪ বছর বয়সী সাবেক পর্নস্টার মিস খান জানান, তাদেরকে ককপিটে ডেকে নেওয়ার পর বিমানের কোন বোতাম কী কাজ করে সেসবও এক এক করে তারেদকে দেখান ওই পাইলট। চোল বলেন, আমি একবার কী একটা বোতাম টিপে দিয়ে ভয় পেয়ে যাই। কিন্তু ওই পাইলট আমাকে আশ্বস্ত করেন যে, বিমানটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে চলছে। সূতরাং ভয়ের কোনো কারণ নেই। তবে ওই সময়ে বিমানটির সহকারি পাইলট চুপচাপ শুধু বিমানচালনাতেই ব্যস্ত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, মিসেস খান বর্তমানে এক মিলিয়নিয়রের ওয়েবক্যাম ব্যবসায় কাজ করেন। তার কাজ হল- ক্যামেরার সামনে কাপড়-চোপড় খুলে নগ্ন হওয়া। এ ঘটনায় কুয়েত এয়ারওয়েজ এখনো কোনো আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া জানায়নি। নিউইয়র্কের বিশ্ব বাণিজ্য কেন্দ্রে ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বরের সন্ত্রাসী হামলার পর ককপিটে সাধারণ যাত্রীদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করে কঠোর আইন করা হয়। ককপিটে ওই দুই নারীকে ডেকে নিয়ে ওই পাইলট সে আইন ভঙ্গ করেছে। এছাড়া ২০০৭ সালে ককপিটে ধুমপান নিষিদ্ধ করে যে আইন করা হয় সে আইন লঙ্ঘনের দায়েও তাকে অভিযুক্ত করা হতে পারে।

মিসেস চোল খান বর্তমানে স্পিয়ারমিন্ট রাইনোর প্রতিষ্ঠাতা সিইও জন গ্রের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে আবদ্ধ রয়েছেন। তার সঙ্গেই তিনি ক্যালিফোর্নিয়ার নিউপোর্ট সৈকতের বিশাল বাড়িতে বসবাস করছেন। ৫৮ বছর বয়সী মি. গ্রে মিস চোল খানকে প্রথমে ওয়েবক্যামের সামনে নগ্ন হওয়ার জন্যই ভাড়া করেছিলেন। সেখান থেকেই তিনি এখন ওই ব্যবসায়ীর প্রেমিকা হয়েছেন। তাদের ব্যবসায় এখন ৫০টি মেয়ে কাজ করে এবং বছরে ১০ লাখ ইউরো আয় হয়।






মন্তব্য চালু নেই