মেইন ম্যেনু

চাঁদপুরে দুই দিনে চার জনের মৃত্যু

চাঁদপুরে সড়ক দূর্ঘটনায়, হিটস্ট্রোক, বিষধর সাপের ধংশন ও গলা ফাঁস লেগে ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার ও রবিবার এ দুই দিনে জেলার বিভিন্ন উপজেলায় মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে।

থানা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানাগেছে, সোমবার দুপুরে হিটস্ট্রোকে ফরিদগঞ্জ উপজেলায় জিহাদ হোসেন (৪০) নামে এক রিক্সা চালক মৃত্যু বরণ করেছে। সে রিক্সাযোগে যাত্রী নিয়ে ফরিদগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যায়। সেখানে প্রচন্ড গরমে হিটস্ট্রোক ও হৃদযন্ত্রের বন্ধ হয়ে অসুস্থ হয়ে রিক্সা থেকে পড়ে ঘটনাস্থলে মারা যায়। জিহাদের বাড়ী ময়মসিংহ জেলায়। সে স্ত্রী, ছেলে ও মেয়ে নিয়ে ফরিদগঞ্জে বসবাস করত।

সোমবার চাঁদপুর-কুমিল্লা আঞ্চলিক মহা সড়কের মেহের স্টেশনের কাছে সিএনজি অটো রিক্সা ও কুমিল্লা হতে চাঁদপুর মুখি একটি ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে সিএনজিতে থাকা যাত্রী রহিমা খাতুন (৫৫) ঘটনাস্থলে মারা যায়। এসময় আহত হয় সেলিনা বেগম (৩৮), সুইটি (২১), আরাফাত (২), আহসান উল্লাহ (৩৫), সিএনজি চালক সোহেল (২১) গুরুতর আহত হয়। আহতদের তাৎক্ষণিক শাহরাস্তি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

অপরদিকে চাঁদপুর নৌ-পুলিশ কনস্টেবল হারুনুর রশিদ (৪৫) রবিবার দুপুরে মেঘনা নদীতে টহল দিতে গিয়ে সাপের দংশনে মৃত্যু হয়েছে বলে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের আরএমও ডাঃ মোঃ বেলায়েত হোসেন নিশ্চিত করেছেন। এ ঘটনার তদন্তকারী কর্মকর্তা চাঁদপুর মডেল থানার এসআই আবু সাইদ জানান, ডাক্তার ময়না তদন্তে প্রাথমিকভাবে হারুনুর রশিদের শরীরে বিষক্রিয়ার লক্ষণ ও হার্ট এটাকের কারণে তার মৃত্যু হয়েছে বলে জানান। প্রকৃত বিষেরা রিপোর্টের জন্য মহাখালীতে তার দেহের অংশ পাঠানো হয়েছে। সেখান থেকে রিপোর্ট আসলেই প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে।

এছাড়া চাঁদপুর সদর উপজেলার চান্দ্রা ইউনিয়নের পূর্ব মদনা হরিপুর গ্রামের হাজী বাড়ীতে সায়মন (১২) রবিবার বিকেলে পুকুর পাড়ে দোলনা দিয়ে খেলার সময় গলায় ফাঁস লেগে মারা যায়। চাঁদপুর সরকারী জেনারেল হাসাপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রবিবার গভীর রাতে সে মারা যায়। তার পিতার নাম আলমগীর হোসেন।






মন্তব্য চালু নেই