মেইন ম্যেনু

চাঁদাবাজ নারী পুলিশ!

রাতে হাইওয়েতে দিব্যি চাঁদাবাজি চালাচ্ছিলেন এক নারী কনস্টেবল। নিজেকে থানার বড়বাবু বলে পরিচয় দিয়ে এই কান্ড ঘটাচ্ছিলেন। অবশ্য সঙ্গে নিয়েছিলেন এক পুরুষ কনষ্টেবলকে। পশ্চিমবঙ্গের কল্যাণী হাইওয়েতে চাঁদা তুলছিলেন অপর্ণা ঘোষ ও বিশ্বজিৎ নামের এই দুই কনস্টেবল।

অপর্ণা ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটে থাকলেও বিশ্বজিৎ থাকেন বারাসাতে। সেখানে এক ম্যাজিস্ট্রেটের দেহরক্ষী। কিন্তু হাইওয়েতে বিশ্বজিৎ নিজেকে ডেপুটি সুপারিনটেনডেন্ট অব পুলিশ (ডিএসপি) বলে পরিচয় দিচ্ছিল।

পুলিশ সূত্র অনুযায়ী, সোমবার রাত ১২টায় কল্যাণী হাইওয়ে দিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন পার্থসারথি ভঞ্জ চৌধুরি নামের একজন। এ সময় তার পথ আটকায় অপর্ণা ঘোষ ও বিশ্বজিৎ। পার্থর কাছ থেকে টাকা চায় তারা। দিতে অস্বীকার করায় তাকে বেধড়ক মারধর করে। পার্থর চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে আসে। তারা দুই পুলিশকে ঘিরে ফেলে। তাদের ভূয়া পরিচয় জেনে ওই এলাকায় তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

খবর দেওয়া হয় স্থানীয় থানায়। থানার পুলিশ এসে ওই দ্জুনকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায়। এই ঘটনায় যুক্ত কনস্টেবল অপর্ণাকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। অবশ্য ওই দ্জুনকে মঙ্গলবার আদালতে তোলা হলে বিচারক তাদের জামিনে মুক্তি দেন।

তথ্যসূত্র : আজকাল






মন্তব্য চালু নেই