মেইন ম্যেনু

চাকরির নাম করে হোটেলে দেহব্যবসায় নিয়োগ!

চাকরির কথা বলে গ্রাম থেকে শহরে নিয়ে আসা হয় উঠতি বয়সের দরিদ্র তরুণীদের। আর শহরে এনে জোড় করে নামিয়ে দেয়া হয় দেহব্যবসায়। এমনই এক ঘটনা ঘটেছে পশ্চিমবঙ্গের মহিষাদলে।

অভিযোগ, চাকরি দেয়ার নাম করে বনগাঁ থেকে তিন নারীকে নিয়ে আসা হয়েছিল মহিষাদলে। কিন্তু তাদের পরে দেহব্যবসায় নামিয়ে দেন হোটেলের ম্যানেজার।

এই অভিযোগে কার্তিক বেরা নামে ওই হোটেল ম্যানেজারকে গ্রেপ্তার করেছে মহিষাদল থানার পুলিশ। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে মহিষাদলের কাপাসএড়ার একটি হোটেলে অভিযান চালায় তারা। সেখান থেকে উদ্ধার করা হয় ওই তিন নারীকে।

অভিযুক্ত ব্যক্তিকে হলদিয়া আদালতে তোলা হলে বিচারক পাঁচদিনের পুলিশি হেপাজতের নির্দেশ দেন। সেইসঙ্গে ওই তিন নারীকে হাওড়ার লিলুয়া হোমে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এদিকে স্থানীয়দের অভিযোগ, হলদিয়া-মেচেদা ৪১ নম্বর জাতীয় সড়কের দু’ধারে মহিষাদল থানা এলাকার হোটেলগুলোতে পুলিশকে মেনেজ করে চলছে রমরমা দেহব্যবসা। কোনো পদক্ষেপ না নেয়ায় আজ এ ব্যবসা ক্রমাগত বেড়েই চলেছে।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই