মেইন ম্যেনু

চাটমোহরে যুবতীর লাশ উদ্ধার ॥ এক যুবক আটক

পাবনার চাটমোহর পৌর সদরের কাজীপাড়া মহল্লা থেকে গতকাল রবিবার সকালে এক যুবতীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত যুবতী হলো, পাশ্ববর্তী নাটোরের লালপুর উপজেলার গেরিলাবাড়ি গ্রামের নিজাম উদ্দিনের মেয়ে লিজা খাতুন (২৩)। থানা পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, পৌর এলাকার ইউনুস আলীর বাড়ির ভাড়াটিয়া আজাহার আলীর ঘর থেকে নিহত যুবতীর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় পুলিশ আজাহার আলীর ছেলে সুজন (২৩) কে আটক করেছে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে তাকে থানা হেফাজতে রাখা হয়। সূত্র মতে, নাটোরের লালপুর থানার গেরিলাবাড়ি গ্রামের নিজাম উদ্দিনের মেয়ে লিজা (২৩)’র সাথে মোবাইল ফোনে সুজনের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। সেই থেকে তাদের মন দেওয়া নেওয়া। লিজার সাথে সম্পর্কের কথা স্বীকার করে সুজন জানান, গত শনিবার লিজা প্রেমের টানে চাটমোহরে চলে আসলে তাকে বাড়িতে চলে যাবার জন্য ভ্যানে তুলে দেই। বাসষ্ট্যান্ড এলাকা থেকে সে আবার ফিরে আসে। রাতে ঘুমের বড়ি সেবন করে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে।

এলাকাবাসী জানান, মেয়েটিকে গত ২ দিন যাবত কাজীপাড়া ও বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় দেখা গেছে। অনেকের ধারণা সুজন মেয়েটিকে ২ দিন যাবত তার হেফাজতে রেখেছিল। গতকাল রবিবার সকালে লিজার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পরলে এলাকাবাসী সুজনকে আটক করে থানা পুলিশে সোপর্দ করে। এ ঘটনায় সুজনের বাবা মা পলাতক রয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, এটি পরিকল্পিত হত্যা না আত্মহত্যা। ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে চাটমোহর থানার অফিসার ইনচার্জ (প্রশাসন) সুব্রত কুমার সরকার জানান, আপাতত এটিকে আত্মহত্যা বলে মনে হচ্ছে। ময়নাতদন্তের পর প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই