মেইন ম্যেনু

চিংড়ি খাওয়ার ৮টি উপকারিতা যা অনেকেই জানেন না

চিংড়ির নাম শুনলেই সবাই বলেন এ তো মাছ নয়, জলের পোকা এবং চিংড়ি খাওয়া শুধুই ভাল স্বাদের জন্য, এই খাদ্যের কোনো উপকারিতা নেই। আর চিংড়ি খেলে আবার অনেক বলে শরীর চুলকায়। কিন্তু এসব একেবারেই ভুল ধারণা।

চিংড়িমাছকে জলের পোকা বললেও এই বিশেষ সুখাদ্যের উপকারিতাগুলি কিন্তু অস্বীকার করার উপায় নেই—

১) চিংড়িতে থাকে ফ্যাট, প্রোটিন এবং মিনারেলসের একটি সুসম অনুপাত যা স্বাস্থ্যের পক্ষে অত্যন্ত ভাল।

২) চিংড়িতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে সেলেনিয়ামযা শরীরে ক্যানসার কোষের বৃদ্ধি রোধ করে। অর্থাৎ ক্যানসার প্রতিরোধে চিংড়ি অত্যন্ত কার্যকরী।

৩) ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিডে সমৃদ্ধ এই খাবার হৃৎপিণ্ড ভাল রাখতে সাহায্য করে। ফ্যাটি অ্যাসিড রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে এবং লিভারের পক্ষেও ভাল।

৪) চিংড়ি হলো প্রচুর পরিমাণ ক্যালসিয়ামের উৎস।

৫) ভিটামিন-ই প্রচুর পরিমাণে পাওয়া যায় চিংড়িতে। তাই পরিমিত পরিমাণ চিংড়ি নিয়মিত খেলে ত্বক ভাল থাকে এবং ত্বকের ঔজ্জ্বলতা বাড়ে।

৬) চিংড়িতে রয়েছে ভিটামিন বি১২। এই বিশেষ ভিটামিনটি স্মৃতিশক্তি প্রখর রাখতে সাহায্য করে এবং হৃৎপিণ্ড ভাল থাকে।

৭) চিংড়ি হলো প্রচুর পরিমাণ প্রোটিনের উৎস আর প্রোটিন শরীরের একটি প্রয়োজনীয় উপকরণ। শরীরে যথেষ্ট পরিমাণ প্রোটিন না থাকলে যে কোনো আঘাত বা ক্ষত সেরে উঠতে দেরি হয়।

৮) অন্যান্য অনেক মাছ এবং মাংসের তুলনায় চিংড়িতে ক্যালোরির পরিমাণ অনেকটা কম। তাই যারা ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে চান তারা চিংড়ি বেশি করে খেলেও ওজন বাড়ার আশঙ্কা নেই।-এবেলা






মন্তব্য চালু নেই